ঘুম নেই/সব্যসাচী

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

সব্যসাচী

অভুক্ত শ্বাপদচক্ষু নিঃস্পন্দ আঁধারে।
জ্বলে রাত্রিদিন।
হে বন্ধু, পশ্চাতে ফেলি অন্ধ হিমগিরি
অনন্ত বার্ধক্য তব ফেলুক নিঃশ্বাস;

রক্তলিপ্ত যৌবনের অন্তিম পিপাসা
নির্ভর গর্জনে আজ অরণ্য ধোয়ায়
উঠক প্রজ্বলি’।
সপ্তরথী শোনে নাকো পৃথিবীর শৈশবক্ৰন্দন,
দেখে নাই নির্বাকের অশ্রুহীন জ্বালা ।
দ্বিধাহীন চণ্ডালের নির্লিপ্ত আদেশে
আদিম র চাহে
ধরণীর বস্ত্র কেড়ে নিতে ।
উল্লাসে লেলিহজিহব লুব্ধ হায়েনারা-
তবু কেন কঠিন ইস্পাত ?
জরাগ্রস্ত সভ্যতার হৃৎপিণ্ড জর্জর,
সুপিপাসা চক্ষু মেলে
মরণের উপসর্গ যেন ।
স্বপ্নলব্ধ উদ্যমের অদৃশ্য জোয়ারে
সংঘবদ্ধ বাল্মীকির দল !

নেমে এসো-হে ফাল্গুনী,
বৈশাখের খরতপ্ত তেজে
ক্লান্ত দুবাহু তব লৌহময় হোক
বয়ে যাক শোণিতের মন্দাকিনী শ্রোত ;
মুমুর্ষ পৃথিবী উষ্ণ, নিত্য তৃষাতুরা,
নির্বাপিত আগ্নেয় পর্বত
ফিরে চায় অনর্গল বিলুপ্ত আতপ।
আজ কেন সুবর্ণ শৃঙ্খলে
বাধা তব রিক্ত বজ্রপাণি,
তুষারের তলে সুপ্ত অবসন্ন প্রাণ ?

তুমি শুধু নহ সব্যসাচী,
বিস্মৃতির অন্ধকার পারে
ধূসর গৈরিক নিত্য প্রান্তহীন বেলাভূমি 'পরে
আত্মভোলা, তুমি ধনঞ্জয়।