তীর্থরেণু/ফৌজদার

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
ফৌজদার


বিরক্ত বিব্রত ফৌজদার
আরামের আরাধনা করে,
দুরন্ত গরম যবে, আর,
কাছারিতে লোক নাহি ধরে;
শুনিতে শুনিতে মোকর্দ্দমা
পদে পদে সন্দেহ কেবলি,
রাশি রাশি মিথ্যা হ’য়ে জমা
আসামীরে ফেলে শেষে দলি’!
আরামের লাগি ফেলে শ্বাস,
‘আলো দাও’ বলি’ চাঁদে ডাকে,—
‘ডাকাতে না শান্তি করে নাশ,
চোর যেন কানাচে না থাকে।’
এত খাটে, এত ভেবে মরে,
তবু তার না পূরে আশয়,
চোরেরা তবুও চুরি করে,
নালিশের শেষ নাহি হয়!
কত মতলব হয় মাটি
কত চেষ্টা ব্যর্থ হ’য়ে যায়,
‘দশের হিতের তরে খাটি’
এই ভেবে সব স’য়ে যায়।

বিরক্ত বিব্রত কেন তবে?
অক্ষত শান্তির কেন আশা?
শান্তি লাগি যুদ্ধ হেথা হবে,
পৃথিবী যে মানুষের বাস।

ওয়ারেণ্‌ হেষ্টিংস্।