ধম্মপদ/বাল বর্গ

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন


পঞ্চম সর্গ—বালবর্গ।[১]

 

জাগ্রত জনের পক্ষে রাত্রি দীর্ঘ হয়
শ্রান্তের যোজন পথ দীর্ঘ অতিশয়

সত্যধৰ্ম্ম নাহিজানে মূর্খ যেইজন
তা’র পক্ষে অতিদীর্ঘ মানব জীবন॥ ১॥ ৬০॥
ভ্রমণ সময়ে কেহ না পায় যখন
নিজ হ’তে শ্রেষ্ঠ কিম্বা সদৃশ সুজন,
একাকী ভ্রমণ করা উচিত তাহার
ভ্রমণে মূর্খের সঙ্গে নাহি উপকার॥ ২॥
"পুত্র আছে, ধন আছে”— এই কুচিন্তায়
মূর্খেরা সংসারে সদা কত কষ্ট পায়
যখন আপনি আমি নহি আপনার,
পুত্র কিম্বা ধন হবে কিরূপে আমার?॥ ৩॥
নিজের মূর্খতা যত জানে মূর্খজন
জ্ঞানী বলি’ তা’রে তত করিবে গণন;
যে মূর্খ পণ্ডিত বলি’ আপনারে জানে,
তাহাকে প্রকৃত মূর্খ বলি’ সবে মানে॥ ৪॥
দর্ব্বী যদি চিরকাল সূপরসে রয়[২]
সে যেমন আস্বাদন কিছুই না পায়,

মূর্খ যদি পণ্ডিতের থাকে সন্নিধানে
ধর্ম্মের নিগূঢ় তত্ত্ব কভু সে না জানে॥ ৫॥
মানব-রসনা যথা ক্ষণেক ভিতর
সূপরস আস্বাদন করয়ে সুন্দর,
পণ্ডিত সকাশে যদি ক্ষণকাল রয়,
ধর্ম্মের স্বরূপ বিজ্ঞ বুঝিবে নিশ্চয়॥ ৬॥
বিষময় পাপ কর্ম্ম করি মূর্খজন
নিজের শত্রুতা নিজে করে আচরণ॥ ৭॥
যে কার্য্য করিলে মনে অনুতাপ হয়,
বিলাপ সম্বল যা’র ফলের সময়
সাধুকর্ম্ম নহে সেই জানিবে নিশ্চয়॥ ৮॥
যে কার্য্য করিলে নাহি অনুতাপ হয়,
ফুল্লমনে ফল যা’র লাভ করা যায়,
সাধু কর্ম্ম বলি তারে বাখানে সবায়॥ ৯॥
যতক্ষণ পাপকর্ম্মে ফল নাহি ফলে,
মধুর বলিয়া তা’কে মূর্খ ব্যক্তি বলে;

কিন্তু যবে সেই পাপ পরিপক্ক হয়,
দুঃখভোগ সার হয়, তখন নিশ্চয়॥ ১০॥
মূর্খ যদি কঠোরতা করি অনুষ্ঠান
মাসে মাসে কুশাগ্রতে করয়ে ভোজন,—
তবুও প্রকৃত জ্ঞানী ধার্ম্মিকের জ্ঞান
যোড়শাংশ মাত্র নাহি পায় সে অজ্ঞান॥ ১১॥৭০॥
সদ্যঃ প্রাপ্ত দুগ্ধ যদি নষ্ট নাহি হয়,
পাপকরা মাত্র তা’র কার্য্য নাহি হয়;
প্রচ্ছন্ন ভাবেতে পাপ করয়ে নিবাস,
ক্রমে ক্রমে ফল তা’র পাইবে প্রকাশ।
ভস্মাচ্ছন্ন বহ্নি সম করিয়া দহন
মূর্খের পশ্চাতে পাপ রহে অনুক্ষণ॥ ১২॥
যখন কলুষ ক্রিয়া প্রকাশিত হয়,
অমনি মূর্খের তা’য় অনর্থ ঘটায়;
মূর্খের মস্তক’পরে করিয়া প্রহার
তখনি হরণ করে সৌভাগ্য তাহার॥ ১৩॥

ভিক্ষু যদি করে চিত্তে অসাধু ভাবনা,
স্বকীয় প্রাধান্য যদি করে সে বাসনা,
আবাসে শ্রেষ্ঠত্ব যদি হয় অভিপ্রায়,
পরকুলে পূজালাভ ভিক্ষু যদি চায়,
যদ্যপি সে চিন্তা করে সতত অন্তরে—
“গৃহী প্রব্রজিত কিম্বা যে আছে সংসারে
একার্য্য আমার কৃত বুঝুক নিশ্চিত
কার্য্যাকার্য্যে সবে মোর হোক বশীভূত”—
হেন অভিমানে পূর্ণ ভিক্ষু যদি হয়
সে ভিক্ষু প্রকৃত মূর্খ জানিবে নিশ্চয়।
তাহার সঙ্কল্প আর বৃথা অভিমান
ক্রমে ক্রমে দিনে দিনে হয় বর্দ্ধমান॥ ১৪॥ ১৫॥
লাভ হ’তে নির্ব্বাণের পথ ভিন্ন তর—
বুদ্ধশিষ্য ভিক্ষু জানি এই তত্ত্বসার,
বিবেকের পথে ক্রমে হন অগ্রসর
সম্মান আকাঙ্ক্ষা সর্ব্ব করি পরিহার॥ ১৬॥

  1. বাল শব্দের অর্থ মূর্খ। Fool.
  2. দর্ব্বী = ব্যঞ্জনাদি তুলিবার হাতা।