পঞ্চক মালা/অনুরোধ

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
অনুরোধ।

তুমি রহিও না
চেতনা-ডোবানো বেদন জাগায়ে চাহিয়া;
তুমি কহিও না
খিন্ন জীর্ণ লুপ্ত কাহিনী, গাহিয়া।
করুণা-তরল-বরষা-লিপ্ত
চাঁদের কিরণে ক্ষিপ্ত চিত্ত;
সঙ্গীত, করে বিষাদে সিক্ত
সুর-তরঙ্গে নাহিয়া।
তুমি দহিও না
পিপাসু করিয়া উপাসে শুষ্ক কণ্ঠ;
তুমি লহিও না
প্রীতি-রঞ্জিনে রক্ত অধর গণ্ড।
ঝলকি উঠিলে রূপের অনল,
জমানো এ প্রাণ হবে রে তরল;
প্রবাহে বহিবে দুখের গরল
ছড়ায়ে বিষের গন্ধ।

তুমি সহিও নাম
যুগযুগান্ত-সঞ্চিত ভার, সরলে!
তুমি বহিও না—
পাষাণ মাথায়, শ্বাসিতে ব্যথায়, অবলে!
সরমের মত নরম বোঁটায়
স্বপ্ন-সুরভি কুসুম লোটায়;
নীরস শৈল কভু কি ফোটায়
কঠোর বক্ষে কমলে?