পলাতকা

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

প০ণ৩খ> Uτ» δ 88 δ ફીટ્ટી/ન ,.r ميkr r & ബ \ s şa * ኧ Wր -] * ,Ιλ "ν ** ۱ بهره میبرال گ f "י ל " -יי Aג' }} 3. ho " ;

 

1 z \% X? son 燃 ി. മീ. i r : تیم ها به پول " با প্রকাশ : ১৯১৮ অক্টোবর পুনরমুদ্রণ : ১৩৩০, ১৩৩৫ মাঘ ১৩৪৮ চৈত্র, ১৩৫২ শ্রাবণ, ১৩৫৭ শ্রাবণ ১৩৬১ প্রাবণ 20. j. z *) രു ആ இ STATE CENTRAL . |GRARY, W EST BENCAL CALCUTTRA প্রকাশক ত্রপুলিনবিহারী সেন বিশ্বভারতী। ৬৩ দ্বারকানাথ ঠাকুর লেন। কলিকাতা ৭ মুদ্রাকর ঐস্বৰ্ধনারায়ণ ভট্টাচার্ধ তাপসী প্রেস। ৩• কর্নওজালিস স্ট্রট। কলিকাতা ৬ ציא পলাতক চিরদিনের দাগা মুক্তি ফাকি মায়ের সম্মান নিকুতি মালা ভোলা ছিন্ন পত্র কালো মেয়ে আসল ঠাকুরদাদার ছুটি হারিয়ে-যাওয়া শেষ গান শেষ প্রতিষ্ঠা የ © ৩১ ר מS

  • 4
  • >

واد ty br。 @》 প্রথম ছত্রের সূচী অপূৰ্বদের বাড়ি আমি যেদিন সভায় গেলেম প্রাতে এই কথা সদা শুনি 'গেছে চলে গেছে চলে’ ঐ যেখানে শিরীষ গাছে ও পার হতে এ পর পানে খেয়ানেীকো বেয়ে কর্ম যখন দেবতা হয়ে জুড়ে বসে পূজার বেদী ছোট আমার মেয়ে ডাক্তারে যা বলে বলুক-নাকে৷ তোমার ছুটি নীল আকাশে বয়স ছিল আট বিকুর বয়স তেইশ তখন, রোগে ধরল তারে মৰ্চে-পড়া গরাদে ঐ, ভাঙা জানলাথানি ম| কেঁদে কয়, মঞ্জুলী মোর ঐ তো কচি মেয়ে যারা আমার সাঝ-সকালের গানের দীপে হঠাৎ আমার হল মনে ૨ S ( J. ୪ର\୬, X > ○" brS )S) صb- M ●さ 2 > S s A H E C t ( , ; R A J. , ; , ;" V. EST B. . . . GA L ÇAųÇUTTA পলাতক ঐ যেখানে শিরীষ গাছে ঝুরু-ঝুরু কচি পাতার নাচে ঘাসের পরে ছায়াখানি র্কাপায় থরথর ঝরা ফুলেব গন্ধে ভরভর— ঐখানে মোর পোষা হরিণ চরত আপন-মনে হেনা-বেড়ার কোণে শীতের রোদে সারা সকাল বেলা । তারি সঙ্গে করত খেলা পাহাড়-থেকে-আন ঘনরাঙা-রোয়ায়-ঢাকা একটি কুকুর-ছান । যেন তারা দুই বিদেশের দুটি ছেলে মিলেছে এক পাঠশালাতে, এক সাথে তাই বেড়ায় হেসে-খেলে। হাটের দিনে পথের কত লোকে বেড়ার কাছে দাড়িয়ে যেত, দেখত অবাক চোখে ।

  • পলাতক।

ফাগুন মাসে জাগল পাগল দখিন-হাওয়া, শিউরে ওঠে আকাশ যেন কোন-প্রেমিকের-রঙিন-চিঠি-পাওয়া। শালের বনে ফুলের মাতন হল শুরু, পাতায় পাতায় ঘাসে ঘাসে লাগল কাপন কুরুক্কুরু । হরিণ যে কার উদাস-করা বাণী হঠাৎ কখন শুনতে পেলে আমরা তা কি জানি ! তাই যে কালো চোখের কোণে চাউনি তাহার উতল হল অকারণে ; তাই সে থেকে থেকে হঠাৎ আপন ছায়া দেখে চমকে দাড়ায় বেঁকে । একদা এক বিকাল বেলায় আমলকীবন অধীর যখন ঝিকিমিকি আলোর খেলায়, তপ্ত হাওয়া ব্যথিয়ে ওঠে আমের বোলের বাসে, মাঠের পরে মাঠ হয়ে পার ছুটল হরিণ নিরুদ্দেশের আশে— সম্মুখে তার জীবন মরণ সকল একাকার, অজানিতের ভয় কিছু নেই আর । ভেবেছিলেম, আধার হলে পরে ফিরবে ঘরে Ե পলাতক। চেনা হাতের অাদর পাবার তরে । কুকুর-ছানা বারে বারে এসে কাছে ঘেঁষে ঘেঁষে কেঁদে কেঁদে চোখের চাওয়ায় শুধায় জনে জনে,— ‘কোথায় গেল, কোথায় গেল, কেন তারে না দেখি অঙ্গনে ? আহার ত্যেজে বেড়ায় সে যে, এল না তার সাথি । আধার হল, জ্বলল ঘরে বাতি ; উঠল তারা ; মাঠে মাঠে নামল নীরব রাতি । আতুর চোখের প্রশ্ন নিয়ে ফেরে কুকুর বাইরে ঘরে,— ‘নাই সে কেন, যায় কেন সে, কাহার তরে ? কেন যে তা সে'ই কি জানে ? গেছে সে যার ডাকে কোনো কালে দেখে নাই যে তাকে । আকাশ হতে, আলোক হতে, নতুন পাতার কাচা সবুজ হতে দিশাহারা দখিন-হাওয়ার স্রোতে রক্তে তাহার কেমন এলোমেলো কিসের খবর এল । বুকে যে তার বাজল বাশি বহু যুগের ফাগুন-দিনের সুরে— কোথায় অনেক দূরে রয়েছে তার আপন চেয়ে আরো আপন জন । তারেই অন্বেষণ 2