পাতা:অক্ষয়কুমার বড়াল গ্রন্থাবলী.djvu/২২৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


अनंघर्ष : Öी ময়ে যে ফুলের বায়, মরণে না ভয় পায়, ভাঙ্গি’ লৌহ-কারাগার প্রিয়জনে বুকে টানে । ঝরে রক্ত তনু বেয়ে, দেখ, কবি, দেখ চেয়ে— আছে চেয়ে অনিমিখে প্রিয়জন-মুখপানে । মুদে আসে আঁখি-পাত, পতি-পদে লুঠে মাথ, মরণ চরণ-প্রাস্তে দাড়ায়ে বিহবল-প্রাণে । অতি অসহায় প্রীতি বসিয়া তটিনী-তীরে, পশ্চিমে রক্তিম রবি ডুবিতেছে ধীরে ধীরে । আলু-থালু রুক্ষ কেশ, ধূলি-ধূসরিত বেশ, পাণ্ডুর কপোল-দেশ, আঁখি হট অন্ধ নীরে । দূরে ভেসে যায় তরী, পড়ে মেঘ মেঘোপরি, পড়ে ঘন কালে ছায়—জলে স্থলে তরুশিরে । নাহি গেহ, নাহি কেহ, শূন্ত প্রাণ, জীর্ণ দেহ, তোমার মরণ-স্নেহ দাও, দেব, তুঃখিনীরে । ঐ) দেবী, তোমার মধুর হাসে, छूच्छ् ब्रांन हिन्नचांटन চকিতে জাগিয় উঠে নিদ্রিতা অমরী । আলু-খালু কেশরাশ, মুখে হাসি, চোখে ত্রাস, লাজে টানে বক্ষোবাস আজীবন ধরি” ।