পাতা:অক্ষয়কুমার বড়াল গ্রন্থাবলী.djvu/২৭৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অক্ষয়কুমার বড়াল-গ্রন্থাবলী কি কথা বলিতে হ’বে একবার বলে গেলে— লক্ষ্য-হারা, হ’য়ে যেত কবি । কোথা তুমি ফুটিয়াছ ফুল এ শুষ্ক তরুর । কোথা তুমি বহিছ তটিনী, এ তপ্ত মরুর । যুখীর শীতল মৃদ্ধ বাস, বায়ু সুধু আনিছে হেথায় কার মুখ চুমি’ ! কে আছ—কোথায় আছে তুমি । বিহঙ্গম ডাকে যে প্রত্যুষে, ডাকে সে কি বৃথায়—বৃথায় । ফুটে না কি প্রভাত-আলোক, সে ডাক কি শূন্তে ভেসে যায়। জীবনের এই আধখানা, দরশ-পরশাতীত অাশা— এ রহস্তে কোন অর্থ নাই ? এ কি স্বধু ভাবহীন ভাষা । এ কি সুধু ভাবহীন ভাষা— এই যে কথার পিছে প্রাণান্ত-পিপাসা । এই যে আঁখির কাছে কত অশ্রু ফুটে আছে, কি আশা নিঃশ্বাস পিছে অবিরত যুঝে— এই বুক-ভরা ব্যথা কেহ নাহি বুঝে ? এই যে নীরব প্রীতি— শারদ জ্যোৎস্নার স্মৃতি, আপন হৃদয়-ভারে ব্যথিত আপনি— বাজিছে বঁাশরা দূরে করুণ পুরবী স্বরে, এই আছে, এই নাই—উছলিছে ধ্বনি—