পাতা:অক্ষয়কুমার বড়াল গ্রন্থাবলী.djvu/৩৬১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


এবী ৪ শোক ভালবাসি বুক পুরে’, তবু—তার দূরে দূরে । প্রাণ ভরে তেমন না হাসে, ঘুমায়ে—ঘুমায়ে তারে খোজে আশে-পাশে । বক-বকি ঘুষা-ঘুষি— আমি যদি কভু রুষি, এক জোটে সবে ওঠে কাদি’ । আমি শেষে অপরাধী—জনে জনে সাধি ।

  • >

সুপ্ত গ্রাম । দ্বিপ্রহরা আমা-নিশীথিনী, দৃঢ় আলিঙ্গনে তার মূৰ্চিছত মেদিনী । পথ ঘাট নদী মাঠ অরণ্য প্রান্তর অভেদে মিশিয়া গেছে—কত দূরান্তর । আলোকে ভুলোকে যেন ছিলাম হারায়ে, আঁধারে আমারে পুনঃ পেতেছি কুড়ায়ে । মৃছ-গতি হৃৎপিণ্ড, শিথিল শরীর ; হৃদয় বাসনা-হীন, উদাস, গম্ভীর । জন্ম মৃত্যু, ধৰ্ম্মাধৰ্ম্ম, কত মনে হয়,— কি ভীষণ নর-ভাগ্য—চির-নিরাশ্রয় । কাতর-অন্তরে ভয়ে ভাবি বারংবার,— কোথা জীবনের শেষ—সমাপ্তি আমার । বৃথা কুটবুদ্ধি, তর্ক, জ্ঞান-অভিমান । কারণ-সাগরে সুপ্ত পুরুষ-প্রধান ; জন্মিল স্বয়ম্ভূ-হৃদে স্থষ্টির কল্পনা, কেমনে—কখন—কেন, হয় না ধারণা । কল্পনার পরিণতি—জন্মিল শকতি, নাহি জানি,—অন্ধ কিংবা সংবেদ-সংহতি । ●*