পাতা:অক্ষয়কুমার বড়াল গ্রন্থাবলী.djvu/৪৪২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অক্ষয়কুমার বড়াল-গ্রন্থাবলী &> “সন্ধ্য সমাগত হেরি’, মাত্র অৰ্দ্ধ সেন নিয়া, পলাইল মানসিংহ অরণ্য-আঁধার দিয়া । বাজিল বিজয়-বাদ্য—মুরজ, বাঝর, ঝাঝ । প্রতাপে রঘুরে চাহি কহিলেন মহারাজ,— “এই ভাগ্য—বীরভাগ্য—চাহে বীর প্রতিদিন, স্বৰ্গ যার কাছে তুচ্ছ, কাল যার পদে লীন।” অাহতে পাঠায়ে গৃহে, দাহ করি মৃত-জনে, স্থানে স্থানে রাখি।” রক্ষী, গেল। সবে ফুল্পমনে ।” २९ উঠিল কেশব ভট্ট করি? জয়-জয়-নাদ– “জনম-ভূমির তরে কার না মরিতে সাধ ? দিয়া এই তুচ্ছ দেহ, দিয়া এই তুচ্ছ প্রাণ—” গজিয়া উঠিল সঙ্ঘ,—“রাখিব মায়ের মান ।” কহিল নগরপাল,—“বৃথা তুঃখ, বৃথা শোক । ভাঙ্গিছে—ভাঙ্গুক বক্ষঃ, প্রতিজ্ঞ। সুদৃঢ় হোক । কত দূরে মানসিংহ–কত দূরে কচুরায় ? বল বৎস, শীজ বল, সময় বহিয়া যায় ।” ২৩ “তৃতীয় দিবস-যুদ্ধে পদ্মব্যুহ বিরচিয়া, যশোর-প্রাস্তরে অসি’ অৰ্দ্ধলক্ষ সেনা নিয়া দাড়াইল মানসিংহ ; কচুরায় পুরোভাগে । নিৰ্ম্মেঘ গগনে সুর্য্য উদিতেছে রক্তরাগে । রচিলেন মহারাজ সূচীবুল্লাহ তীক্ষুমুখ,— মুখে রুড, পরে সূৰ্য্য ; পশ্চাতে মদন, সুখ । কুমারে রাখিয়া পার্শ্বে, বসি’ রুদ্রকাস্ত’পরি, গজিলেন মহারাজ,—“জয় মা যশোরেশ্বরি ”