পাতা:অক্ষয়কুমার বড়াল গ্রন্থাবলী.djvu/৮১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রদীপ ঃ শেষ t& శి হবে নিশ গভীর। যখন, দাসী সখী ঘুমে অচেতন ; আলসে শরীরখানি শয়নে পড়িবে ঢলে’, আলসে আসিবে ধীরে মুদিয়া নয়ন ; একে একে প্রাসাদের সহস্র তড়িৎ-শিখা যাইবে নিবিয়া ; অলক্ষ্যে নীরবে জাগরণ যাবে সুখ-তন্দ্রীয় ডুবিয়া,— সে সময়ে যদি, সখী, আসে স্বপনের ছলে একটী অফুট জাগরণ,— একটা সরসী-তীরে, বহে বায়ু ধীরে ধীরে, হাতে-হাতে ভ্ৰমে হেসে শিশু হুই জন ; একে বাজাইছে বঁাশী, অন্যে তুলে ফুলরাশি, ঘুরে’-ফিরে’ হাতে হাত, নয়নে নয়ন— যাক যাক, সত্য কভু নহেক স্বপন । যৌবনে বুঝি নি যাহা, শৈশবে তা বুঝেছিমু— হয় না প্রত্যয় । হৃদয়ে কি নাহি সে হৃদয় । যা ছিল সকলি অাছে, স্বপন টুটিয়া গেছে— আমি বুঝি আত্মহারা, সই, যা নয়—তা ভেবে ভেবে”—য। নই, তা হই । وديه যাক স্মৃতি, যাক স্বপ্ন-কথা— তুমি নব-পুষ্পময়ী লতা। তোমার সুখের তরে কত লোকে কি না করে— সেধে’ সেধে। সহে শত ব্যথা ।