পাতা:অক্ষয়-সুধা - অক্ষয়কুমার দত্ত.pdf/৩৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

( ১ • ) আমাদের চিন্তারাজ্য ও ভাবক্ষেত্র যখন প্রসারিত হইল, যখন নূতন নূতন চিস্তা ভাষায় পরিব্যক্ত করিবার প্রয়োজন আসিয়া উপস্থিত হইল, তখন। সংস্কৃত শবের ব্যবহার নিতান্তই স্বাভাবিক হইয়া দাড়াইল। বৰ্তমান সময়ে যাহারাসাধ্যমত সংস্কৃত শব্দ বর্জন করিতে ইস্ক, তাহারা শব্দ প্রয়োগের এই প্রয়োজন দুইটি চিন্তা করিয়া, দেখবেন। একেবারে সংস্কৃত শব ব্যবহার না করিয়া প্রত্যেক অশিক্ষিত গ্রাম্য লোক বুঝিতে পারে— এই প্রকারের শবের সাহায্যে যদি সাহিত্য রচনা করা যায়, তাহা হইলে আমাদের চিন্তা, ভাব ও কল্পনা অতি অল্পদূরে মাত্র প্রসারিত হইবে। তথন মু তন পূতন শৰ গঠনের আবশ্যকতা স্বতঃই আসিয়া উপস্থিত হইবে। নূতন শৰ কি একেবারে গঠন করিবেন? যে সমুদয় অসভ্য বন্ত। জাতিগণের কোনরূপ উজ্জ্বল সুসভ্য গৌরবময় অতীত নাই এবং সেই অতীতের প্রকাশক সুপুষ্ট ও সমুন্নত সাহিত্য নাই, তাহারা হয় কোন বৈদেশিক সাহিত্য হইতে, এই সমুদয় শক সঞ্চয় বা আহরণ করিবে, নতুব৷ কৃত্রিম উপায়ে শক নিৰ্ধারণ করিবে। কিন্তু আমরা যদি সে পথ অবলম্বন করি, তাহা হইলে আমাদের অতীতের উত্তরাধিকারীত্ব ও আত্মপ্রকৃতির বৈশিষ্ট্য হইতে বঞ্চিত হইব। ৭ ) অক্ষস্র কুমার দত্তের জীবনের সর্বপ্রধান কথা—ব্যক্তিত্বের ও স্বাধীন চিন্তার পূর্ণ বিকাশ (Strong Individuality)। আমাদের ভারতবর্ষে এই জিনিষটিরই অভাব হইয়াছিল এবং আমাদের যাবতীয় দুর্গতির মূলে এই ব্যক্তিত্বের অভাব, হেতুরূপে বির্ত্তমান। আমি ঐশীশক্তির অংশ, অতএব আমাকে আমার। স্বাধীন চিন্তায় আমার নিজের পথে ফুটিক্সা উঠিতে হইবে অন্ধ ভাবে গতানুগতিকের অনুবৰ্তন করিলে, আমার জীবন সফল হইবে না৷