পাতা:অক্ষয়-সুধা - অক্ষয়কুমার দত্ত.pdf/৫৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

অক্ষয়-ক্ষুধা মুথমণ্ডল সকল সহসা স্মরণ করিয়া, তাহাদিগকে নেত্রগোচর করিবার নিমিত্ত একান্ত উৎসুক হইয়াছেন, তিনিই জানেন, স্বদেশ কিরূপ প্রীতি ভাজন। স্বদেশীর বস্তুর কেমন প্রেমময় ভাব! যে দেশ-পর্যটক বহুদিবসের। পরে কোন বিদেশীয় পান্থশালা স্থিত কোন অপরিচিত জন্মভূমির স্বরূপ পথিকের প্রমুখাৎ স্বকীয় জন্মভূমির প্রসঙ্গ শ্রবণ। করিয়াতাহার প্রতি একদৃষ্টে দৃষ্টিপাত্ত-পূর্বক, অবিরল অঞজল বিসর্জন করিয়াছেন, তিনিই জানেন, জন্মভূমি কি পরম মনোরম প্রীতিকর পদার্থ! “জননী জন্মভূমিঞ্চ স্বৰ্গাদপি। গরীয়সী”— এই সুধাময় শ্লো কাদ্ধ ঘে মহাত্মা প্রথম উচ্চারণ করিয়াছেন, তিনিই সুখময় স্বদেশের সুরম্য ভাব অবগত ছিলেন। মে সমস্ত স্বদেশানুরাগী বীর পুরুষ দুরন্ত শক্রর কঠিন হস্ত হইতে জননীস্বরূপা জন্মভূমির পরিত্রাণ-সাধনের নিমিত্ত অম্নান-বদনে, অকুতোভয়ে উৎসাহিতহৃদয়ে আপন জীবন সমৰ্পণ করিয়া গিয়াছেন, তাহারাই জানিতেন, প্রাণাপেক্ষা প্রিয়তম জন্মভূমির সমীপে জীবন কি তুচ্ছ পদার্থ! যে স্থানে জন্মগ্রহণ-পূৰ্বৱক লালিত ও প্রতিপালিত হইয়াকৌমার, কৈশোর ও যৌবনকাল যাপন করিয়াছি, যে স্থান পিতামাতাভ্রাতা, ভার্য্যা, পুত্র, ক্যা, মুহৃদ, বান্ধব প্রভৃতি প্রিয়জনবর্গের আধার-ভূমি, যে স্থানের নামোচ্চারণ করিবামাত্র প্রেমসিন্ধু উচ্ছলিত হইয়া উঠে, ধরাতলে তাহার তুল্য প্রেমাস্পদ আর কি আছে? এতাদৃশ স্নেহ-ভাজন জন্মভূমিকে দুঃখভারাক্রান্ত ও বিপগ্রস্ত দেখিয়া যাহার অন্তঃকরণ বিদীর্ণ না হয়, সে মানব বলিয়া গণ্য হইবার যোগ্য নহে। দুঃথের কঠোর হস্ত। হইতে জন্ম-ভূমির পরিত্রাণ-সাধনার্থ যত্নবান না হইয়া, যে ব্যক্তি নিশ্চিন্তমনে কালহরণ করিতে পারে, তাহার অন্তঃকরণ যে পাষাণময়, ইহাতে সনেহ নাই; তাহার অসার জীবন জীবনই নহে।