পাতা:অক্ষয়-সুধা - অক্ষয়কুমার দত্ত.pdf/৭৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

সাহিত্য— পরিশ্রম ২৭

. অনাবশ্যক অলীক কার্য্য-সমুদায় ভদ্রলোকের অনুষ্ঠান-যোগ্য সুখদায়ক ব্যাপার বোধ করিয়া থাকেন; তাহারা কৃষি ও শিল্পকর্ম্ম ইতর বলিয়া গ্রণ্য করেন, কিন্তু মৃগয়ায় প্রবৃত্ত হইয়া পশুবধ করাসদ্বংশ শারীরিক শ্রম জাত সন্ত্রাস্ত লোকের অযোগ্য বিবেচনা করেন না। নিন্দনীয় নহে “ভদ্র” এই আখ্যাধারী মহাশয়ের যৎসামান্য জলাশয় তটে উপবিষ্ট ও মাৰ্তণ্ড তাপে তাপিত হইয়া এবং দুঃসহ চাকচিক্যময় জলপুঞ্জোপরি প্লবমান শ্বেতবর্ণ তরণ্ডের প্রতি একদৃষ্টে দৃষ্টিপাত করিয়া, অশেষবিধ নিম্ভরাচরণ সহ কারে প্রাণিহিংসা করাকে আপনাদের উপযুক্ত। কর্ম্ম বোধ করেন; কিন্তু জনসমাজের উপকারী অত্যাবশ্যক কর্ম্ম-সমুদায়। কেবল কষ্টদায়ক নীচবৃত্তি বিবেচনা করিয়া থাকেন। যে সময়ে মনুষ্যের বুদ্ধি-বৃত্তি ও ধর্ম্ম-প্রবৃত্তি প্রবল থাকে, তখন ঊাহাকে উচিতকর্ম্মে প্রবৃত্ত হইয়ামনুষ্য নামের গৌরবরক্ষা করিতে দৃষ্টি করা যায়। আর বখন র্তাহার নিকৃষ্ট প্রবৃত্তি সকল প্রবল হইয়া নিয়মানুকূল উঠে, তখন পশুবৎ নিকৃষ্টব্যাপারে ব্যাপৃত হইয়া, নিন্দনীয় নহে। নিকৃষ্ট জীবের ভাবগ্রহণ করিতে দেখা যায়। কিন্তু অবিবেচক অদুরদর্শী মনুষ্যদিগের এই সমস্ত অনিষ্টকর কুসংস্কার, করুণাময় পরমেশ্বরের নিয়মের অনুগত নহে। যখন আমাদের লোকঘাত্রা নির্বাহের উপযোগী যাবতীয় ব্যবসায়ে প্রবৃত্ত হওয়া, তাহার সম্পূর্ণ অভিপ্রেত, তখন তাহ৷ কোন ক্রমেই ণর বিষয় নয়। যাহা তাহার। নিয়মের প্রতিকূল, তাহাই নিন্দনীয়; তাহার নিম্নমের অমুকুল ব্যবসায় আদরণীয় ব্যতিরেকে কদাচ নিন্দনীয় হইতে পারে না। যে বৃত্তি অবলম্বন করিলে, বুদ্ধিবৃত্তি ও ধর্ম্ম-প্রবৃত্তি চরিতার্থ হয়, পরম পিতা পরমেশ্বরের আজ্ঞা প্রতিপালিত হয়, এবং অন্যের উপাসনা তুচ্ছ করিয়া স্বীয় স্বতন্ত্রতা রক্ষা করিতে পারা যায়, তাহ৷ নিন্দনীয় বৃত্তি হওয়া ব্যবসায়