পাতা:অধিকার-তত্ত্ব.pdf/১০১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ఫి • অধিকার-তত্ত্ব । পরস্পর সকল ব্যক্তির মধ্যেই আশ্চর্য্যতর ঐক্য বিরাজ করিতেছে । দৈহিক বিভাগে সকলেরই হস্ত, পদ, চক্ষু, কর্ণ, নাসিকা অাছে, সকলেই অন্ন, জল, বায়ু, তেজ সম্ভোগকরত জীবিত থাকে এবং সকলেরই কলেবর অবশেষে ভূত পদার্থে বিলীন হইয়া যায় । ঐ রূপ আধ্যাত্মিক বিভাগে সকলেরই আত্মা চেতন ও অমৃত পদার্থ এবং প্রত্যয়, প্রীতি, বিবেক, বুদ্ধি, স্নেহ, মমতায় রূঢ়ীভূত । সকল আত্মাতেই উপাসনা প্রবৃত্তি বিরাজ করে এবং সকলেই সেই অভয় পদ লাভের নিমিত্তে লালায়িত রহিয়াছে । , ২ । শরীর কালের দুর্জয় নিয়মের অধীন, এজন্য অমৃত ভোজনে তাহার অধিকার নাই ! এক শরীর অন্য শরীরকে প্রীতি করিতে পারে না । দুই শরীর সমসৌষ্ঠবতা ও সমশক্তি প্রাপ্ত হইলে ও পরস্পর প্রীতি করে না । সুতরাং শরীরে শরীরে যতই ঐক্য হউক তাহা মুক ভিন্ন জীবন্তু নহে । ৩। কিন্তু আত্মায় আত্মায় যে সাধারণ মূল ঐক্য আছে डाँझाँ জীবন্ত এক আত্মা অন্য আত্মকে প্রীতি করে এবং মানবের তাত্মিা পরস্পর যতই সম-উন্নতিতে আরোহণ করে, ঐ প্রীতি ততই পরস্পর বুদ্ধি পাইতে থাকে । ৪ । শরীরে শরীরে মিল থাকিলেই যে আত্মায় আত্মীয় মিল হইবে, এমত নহে । অতএব দুই জনের মধ্যে যৌবনের সমতা, সম্পত্তির সমতা, যশের সমতা, লোকবলের সমতা, ইত্যাদি বাহ্য সমতা থাকিলেই বা আত্মীয় আত্মায় কিমতে মিল হইবে ? ফাদৃশ স্থলে যে পরিমাণ ঐক্য সম্ভব কেবল পার্থিব-রস তাহলে উদ্দীপক, প্রেমরস নহে । তাহার নাম