পাতা:অধিকার-তত্ত্ব.pdf/১০৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অধিকার-তত্ত্ব । ᎼNᎼ কালেতে হয়ত সেই প্রকার সম্প্রদায় সকল উত্থিত হইবেক । উন্নতি কখন সমপদে স্থিরতর থাকিবে না, ভ্রাতৃভাবও কখন দৃঢ়তররূপে স্থাপিত হইবেক না, কিন্তু ঈশ্বর সকলের পিতা— এভাবে ভ্রাতৃভাব চিরকালই থাকিবে । সে ভ্রাতৃভাবের সহ কোন দলের বিশেষ ঘনিষ্ঠত নাই । তাহার হিল্লেtল সকলেরই হৃদয় দিয়া বহিতেছে । ১২ । যে ভ্রাতৃভাব দলকে উৎপন্ন করে তাহা পরিণামে বিচ্ছেদের কারণ হয় । এক দল অন্য দলের প্রতিযোগী । সেই প্রতিযোগিতার মধ্যেই বিচ্ছেদ বিরাজ করে । যখন একদল দ্বিধা হয় তখন বিচ্ছেদ বিষণ্ডুল্য হয় । পরের সঙ্গে বিবাদ যত কষ্টদায়ক, ঘরে ঘরে বিরোধ তাহা অপেক্ষাও অধিক । দল বাধিলেই অস্তুে ঐ ফল ফলিবে । অতএব পরস্পর আত্মীয় আত্মায় যত মিলন হইবে তাহার সুধাময় ফলভোজন কর, আড়ম্বর করিয়া দল বাধিও না । ১৩ । আদি ব্রাহ্ম-সমাজে প্রথমতঃ সাম্প্রদায়িক ভাব ছিল না ; মধ্যে হইয়াছিল, এখন আবীর ক্রমে ক্রমে সে ভাবের হ্রাস হইতেছে । উন্নত ত্রহ্মের গৃহবিচ্ছেদে অন্য জাতির সহ ভ্রাতৃভাব স্থাপন করিতে গেলেন, ভ্রাতৃভাব যে নাম মাত্র, প্রাচীন ত্রাহ্মেরা তাহা ঐ বিচ্ছেদগুৰুর নিকট শিক্ষা করিলেন । উন্নত ব্রাহ্মের এক দল ভাঙ্গিয়া আবার পাকা পোক্তরূপে ভূতন দল বসাইতেছেন । সুত্রপাতেই একবার খৃষ্ট লইয়। বিবাদ হইয়া, তাছা হইতে দুই একজন স্বতন্ত্র হন ; কিন্তু ভবিষ্যতে যে আর কত জন স্বতন্ত্র হইবেন বলা যায় না ।