পাতা:অধিকার-তত্ত্ব.pdf/৩৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


象家、 অধিকার-তত্ত্ব । $, দেবগণকে বা কৃষ্ণ খৃষ্টাদি মৃভব্যক্তিদিগকে প্রতিম দ্বারা অচ্চনা করেন র্তাহার প্রথম প্রকার । তাহারা " বাহপৌত্তলিক ” বা “ স্থলপৌত্তলিক ” শব্দের বাচ্য । । ৬ । আর র্যাহারা বাহিরে আপনারদিগকে নিরবয়বত্রহ্মের উপাসক বলিয়া পরিচয় দেন। অথচ র্যাহার। জ্ঞানযোগে ঈশ্বরকে দেখিতে অশক্ত হইয়া মানসে তাহাকে কোন কম্পিত-রূপ বিশিষ্ট করিয় লন ; অর্থাৎ র্যাহার র্তাহাকে স্বৰ্য্য, অনল বা সৌদামিনীর জ্যোতিরূপে, আকাশ রূপে কিম্বা বিরাটরূপে অথবা বিষয়েত্ৰিয়মমাদির উপমা দ্বারা ভাবনা করেন, র্তাহার। দ্বিতীয় প্রকার । ইহঁরা হয় “ মানসপৌত্তলিক" নয় “ দুর্বল-ব্রহ্মজ্ঞানী” এই অন্যতম শব্দের বাচ্য । প্রেম, বৈরাগ্য ও জ্ঞানাভিমানী অনেক পরমহংস, যোগী, ও ব্রাহ্ম এই বিভাগে পড়িয়া রহিয়াছেন । ৭ । মানস-পৌত্তলিক অর্থাৎ দুৰ্ব্বল-ব্রহ্মজ্ঞানীদিগের মধ্যে একটি বিশেষ শাখা আছে । তাহারদের মত অপেক্ষাকৃত স্থূল । তাহারা মনুষ্য বিশেষের হস্তধারণ ন করিয়া, মনুষ্যবিশেষকে মধ্যবিত না করিয়া ঈশ্বরোপাসনা করিতে পারেন না, যথা মুসলমান, নানকপন্থী, একেশ্বর বাদী-খৃষ্টান প্রভৃতি যাহারা মহম্মদ, নানক, অথবা খৃষ্টকে মধ্যবর্তী, গুৰু, নেতা বা অাদর্শ করিয়া ধৰ্ম্ম-পথে উত্থান করেন । অনেক ব্রাহ্মও এই শাখার অন্তর্গত আছেন— র্যাহার একেশ্বরবাদী খৃষ্টানদিগের দৃষ্টাস্তে খৃষ্টকে আদর্শ করিয়া থাকেন । , ৮ । এই সকল দুৰ্ব্বলাধিকারী স্ব স্ব ক্ষমতানুসারে পরম