পাতা:অধিকার-তত্ত্ব.pdf/৪০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অধিকার-তত্ত্ব । ২৯, উহাতে সংলগ্ন হয় না । এই বিশেষ ভাবই প্রত্যেক আত্মার স্বাধীনতা । ৬। ব্ৰহ্মবাদী প্রত্যেক মানবাত্মার ঐ বিশেষভা উত্তম রূপে পাঠ ও হৃদয়ঙ্গম করিয়া প্রভ্যেকের স্বাধীনতা যাহাতে উন্নত হয়, এবং সেই স্বাধীনতার মধ্যদিয়া যাহাতে প্রত্যেকের ব্রহ্মজ্ঞানের অধিকার ও ধারণার বৃদ্ধি হয়, তাদৃশ উপদেশই প্রদান করেন। কিন্তু যে ঔষধি ও পথ্য কাহারও ধাতুর বিৰুদ্ধ ও অসহনীয়, তিনি তাহাকে তাহা প্রদান করেন না । যিনি ভাহা করিতে যান, তিনিই মানবাত্মাতে অমৃতের পরিবর্তে গরল উৎপত্তি করিয়া থাকেন । ৭ । ব্রহ্মবাদী যে ঐ প্রকার বিজ্ঞতার সহিত উপদেশ দেন তাহা সকল অবস্থাতে একেবারে ব্রহ্মের পূর্ণ ভাবেদীপক ন হইতে পারে, কিন্তু তাহ পরম প্রার্থনীয় মুক্তি পথের সোপানস্বরূপ । তাহা ঈশ্বরের ইচ্ছার প্রতিকুল নহে, কোন আত্মারই স্বাধীনতার বিৰুদ্ধ নহে ; এবং তাহার স্বীয় বিবেক শক্তিরও বিৰুদ্ধ নহে । ৮ । ব্রহ্মবাদী তাদৃশ ব্যক্তিদিগের মনের ভাব, অবলম্বিত পন্থা, এবং সেই পন্থাতে ব্ৰহ্মজ্ঞানোন্নভির যে সকল আধ্যাত্মিক উপায় ও গভীর উৎসাহ বিরাজ করে তাহা দর্শন, শ্রবণ, তুলনা, জ্ঞান, ধ্যান দ্বারা বিশেষরূপে অবগত হয়েন এবং সেই সকল দুৰ্ব্বলাধিকারীরা আপন আপন স্বাধীনতা-স্থত্রে যে দিগ দিয়া বুঝিলে প্রকৃত কথাটি বুঝিবেন তিনি সেই দিগ দিয়া ভঁাহাবুদিগকে বুঝাইয়া দেন। তাহাতে র্তাহার ক্রমে আপন, আপন পন্থা ও