পাতা:অধিকার-তত্ত্ব.pdf/৬২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অধিকার-তত্ত্ব । t করিয়া তোলা ঈশ্বরের ইচ্ছা তখন ব্রাহ্ম কি সেই ইচ্ছার সহিত ব্ৰহ্ম-প্রীতিকামনায় যোগ দিতে পাপ বোধ করিবেন ? আপনার ব্রহ্মজ্ঞানের সে প্রকার অভিমান করা ঐশিক নিয়মের বিৰুদ্ধ । ভারতবর্ষে পূৰ্ব্বকালে ব্রহ্মবাদী ঋষিরা কখন এ প্রকার অহঙ্কার প্রকাশ করেন নাই, কেবল ইংরাজেরা এদেশে আসিয়া এই শিক্ষণ দিয়াছে যে, খৃষ্টানদিগের অন্য ধৰ্ম্মাবলম্বীর ধৰ্ম্মকার্য্যে কোন সাহায্য করা উচিত নহে । ব্রাহ্মেরা খৃষ্টানদিগের জানিত অনুকারী । তাহারাও খৃষ্টানদিগের ন্যায় বলেন যে পৌত্তলিক ধৰ্ম্মে সাহায্য দেওয়া উচিত নহে । এই সব কথা কেবল দ্বেষ ও অহঙ্কার মা ত্র। সকলেই ঈশ্বরের পথের যাত্রী, সকল ধৰ্ম্মই ঈশ্বরোদেশে, তাহfর মধ্যে ইহাকে সাহায্য করিতে নাই, উহাকে আছে, ইহার অর্থ কি ? কিন্তু সাহেবের বড় বড় গ্রীজ করিতেছেন, হিন্দুস্থানের রাজার। জমীদারের তাহতে টাকা দিতেছেন, সাহেবেরণ তাহা ধন্যবাদের সঙ্গে লইতেছেন । পৌত্তলিকের ব্রাহ্মদিগকে বহুধন সাহায্য করিয়াছেন, সে সময়ে ব্রহ্মেরা খুশী হইয়াছেন । তবে, বল দেখি কে ত্যধিক মহত ? সাহেব অণর ব্রাহ্ম ? না হিন্দু ?