পাতা:অপরাজিত - বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/৩১৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


थाऊ OIA ৰেলা পড়িয়া আসিয়াছে এমন সময়ে পথটা সোনাডাঙ্গা মাঠের মধ্যে ঢুকিয়া পড়িল-পাশেই মধ্যখালির বিল-পদ্মবনে ভরিয়া আছে ! এই সেই অপবর্ণ সৌন্দৰ্য্যভূমি, সোনাডাঙার স্বপ্নমাখানো মােঠটা-মনে হইল) এত জায়গায় তো বেড়াইল, এমন অপরােপ মাঠ ও বন কই কোথাও তো দেখে নাই! সেই বনঝোপ, ঢিবি, বন, ফলে ভাতি বাবলা-বৈকালের এ কী অপবর্ণ রূপে { তারপরই দরি হইতে ঠাকুরব্বি-পকুরের সেই ঠ্যাঙড়ে বটগাছটার উচু ঝাঁকড়া মাথাটা নজরে পড়িল-যেন দিকসম্যুদ্রে ডুবিয়া আছে- ওর পরেই নিশিচন্দপাের। -কমে। বটগাছটা পিছনে পড়িল-অপাের বকেয়ী রঞ্জ চলাকাইয়া যেন মাথায় উঠিতে চাহিতেছে, সারা দেহ এক অপব অনভূতিতে যেন অবশ্য হইয়া আসিতেছে । কুমে মাঠ শেষ হইল, ঘাটের পথেয়। সেই আমবাগানগলো।--সে রীমাল কুড়াইবার ছলে পথের মাটি একটু তুলির মাথায় ঠেকাইল । ছেলেকে বলিল--এই হ’ল তোমার ঠাকুরদাদার গাঁ, খোকা, ঠাকুরদাদার নামটা মনে আছে t७ा-बल (gा दावा कि ? কাজল হাসিয়া বলিল-শ্ৰীহরিহর রায়, আহা, তা কি আর মনে আছে । অপ বলিল, শ্ৰী নয়। বাবা, ঈশ্ববর বলতে হয়, শিখিয়ে দিলাম যে সেদিন ? রানীদিদির সঙ্গে দেখা হইল পরদিন বৈকালে । সাক্ষাতের পবি-ইতিহাসটা কৌতুকপণ, কথাটা রানীর মাখেই শনিল । রানী অপ আসিবার কথা শানে নাই, নদীর ঘাট হইতে বৈকালে ফিরিতেছে, বাঁশবনের পথে কাজল দাঁড়াইয়া আছে, সে একা গ্রামে বেড়াইতে বাহির হইয়াছে । DD sBBBuD BBDBDDB DBBB BBYDBBBY DBYEDBB BgDB B BBDyu B BDDYmBBDDBBDBB DS D EB SYBBDBB DLLSS BBBDBBB বাস ধ্বঞ্চিত, কোথায় যেন তাহারা উঠিয়া গিাপ্লাছিল তারপরে । তাদের ঘড়ির সেই অপ না ?- "ছেলেবেলার সেই অপা ! পরীক্ষণেই সামলাইয়া লইয়া সে কাছে গি21 ছেলেটির মাখের দিকে চাহিল- অপও বটে, নাও বটে। যে বয়সে সে গ্রাম ছাড়িয়া চলিয়া গিয়াছিল। তার সে সময়ের চেহারাখানা রানীর মনে অস্কা আছে, কখনও ভুলিবে না-সেই বয়স, সেই চেহারা, অবিকল । রানা বুলিল- তুমি दाgअझै द७ि g:ाछ थापा ? ফাজিল বলিল- গাঙ্গলদের বাড়ি-- ধানী ভাবিল, গাঙ্গালীরা বড়লোক, কলিকাতা হইতে কেহ কুটুম্ব আসিপ্পা থানিবে, তাদেরই ছেলে । কিন্তু মানষের মতও মানীয হয় । বকের ভিতরটা ছ’াৎ করিয়া উঠিয়াছিল একেবারে । গাঙ্গালীবাড়ির বড় মেয়ের নাম করিয়া বলিল-তুমি বধি কাদপিসির নাতি ? কাজল লাজক চোখে চাহিয়া বলিল-কাদপিসি কে জানি নে তো ? আমার ঠাকুরদাদার এই গায়ে বাড়ি ছিল-ত’ার নাম ঈশবর হরিহর রায় -আমার নাম অমিতাভ রায় {