পাতা:অবলা প্রবলা.djvu/২২১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


२-४ অবল প্রবল। পুরুষ হয়ে বাহিরেতে গিয়া ৷ সদাগর সেইমত উঠিয়া অমনি ৷ পলকের মধ্যে হয়ে আইল রমণী। নাগর অবাক হৈল নিরীক্ষণ করি। ভার বুঝে মন্দং হাসিছে নাগরী। কৌতুক হইল বড় উপকথা প্রায় । দোহাকার ভাৰে কিন্তু মোহিত দোহায । নাগরং সেঞ্জে বলে ওহে কান্ত । অণজিত তোমার আমি হইলাম কান্ত ৷ এই বেশে একবার দেহ ভালিঙ্গন । শুনিয়া নাগরী হৈল হরষিত মন । নিরথিয় নিজ কান্তে ভাবে মুগ্ধ হয়। এ বেশেতে আলিঙ্গন নূতন ত নয়। মুখেতে স্বীকার কৈল পরিহরি লাঞ্জ । মত্ত হয়ে যুবক সাধিল নিজ কাজ। উথলিল স্থ সিন্ধু বসিল উঠিয়৷ শ্ৰীকালীঙ্গমার দেখে সে মুচ কিয় । । - - অথ কান্ত সদাগরের নিকট সুন্দরীর - যুবক বেশে দাসত্ব স্বীকার । লযুভঙ্গত্রিপদী। রতি রঙ্গ সঙ্গে করি,বৈসে নাগর নাগরী । সে ৰূপের ছাদে কাম রতি কাদে, বুৰি গুমরি গুমরি। যুবক চিন্তিত মনে, কি কৰি এইক্ষণে রমণীর রূপ, ধরিব কি ৰূপ, এদায়ে তরি কেমনে। বিচার ন কৈলু এর ঘটিৰে ৰিষম ফের। ও ভঁ সদাগর, অাছিল নাগর, নাগর হুইবে ফের ।