পাতা:অবলা প্রবলা.djvu/৭৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৬৪ - জবলপ্রবল। শীতল করি বিরহানল ৷৷ হেন মনোহর মন চোরে না পাইলে । মনে হয় মনাগুণে ডুবিতে সলিলে । ভাবিলে পতিকে মেনে মনে একবার । মরি গুমরিয়া সই ভাব হেরে তার ॥ ধৰ্ম্ম ভেবে কদাপি না করে পরশন। সুবরণ ভেবেই কালীর বরণ । তড়ি ত বরণ এক নবীন। রমণী । কহে তারে (কম মন্দ বল২ ধনি ৷ পণ্ডিত ব্রাহ্মণ পতি থাকে চতুয়াঠী । পরিপাটী ভূমির না রাখে কোন পাঠি । পোষ৷ পার্থী ঘরে তার না পড়ায়ে তায় । চতুষদ চতুর্মাঠী পড়াইতে যায় । বার মাস মধ্যে আসে দুই তিন দিন। তাহে ও সম্ভোগ নহে ভেবে তনু ক্ষীণ । বা ছিয়াং যদি ভাল দিন পায়। তবে রতি নৈলে গতি নিজ স্থানে যায় ৷ কি করিব চিরকাল গণি হু। হ: তাশ ! থাকিয়। পতির বাসে যেন বনবাস । বেশ ভূষচিঙ্গর বিনায়ে কিবা ফল জ্বলায় শরীর যেন জুলন্ত অনল । গুরুজন ভয়ে কিছু না পারি করিতে । তেজিতে বাসনা ধৰ্ম্ম হয় তার রীতে । একে নব যৌবনারসিক পতি তায় । বসন্ত হইলে হয় প্রাণ যায়ং । ভুমর কোকিল সদা নিজং রবে। জী: বন বিনাশ হেতু সাজিয়াছে সবে । অন্তর নিবাসি দুঃখ অন্তর না হয়। নিরস্তর সে অন্তরে ভাবান্তরে