পাতা:অমরনাথ (কৃষ্ণচন্দ্র রায় চৌধুরী).pdf/২০৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অমরনাথ । పిసిసి বাহক, কান্নার হুলুল্পনি, আমার বর অনল, বাসর শয্যা চিতা, তাতে আমি অগ্নিকে হৃদয়ে ধারণ কোরে এই মনুষ্য জন্মের স্বরূপ যে রজনী, তাই প্রভাত কোরব । বরযাত্র যম আর র্তার সহচরগণ, অ্যর কন্যাযাত্র ভূত গ্রেত। মডুইপোড়া পুরোহিত। ন্যাও এখন ফলারের যোগাড় কর। নীল । আহা সই, তুমি এই কথা রহস্য ভাবে বোল্‌লে, কিন্তু আমার যথার্থ কান্না অসচে। আচ্ছা, তুমি তামাসা ছাড়, যথার্থ তোমার মনের কথা কি, বল । চারু । তবে যথার্থই যদি বোলতে হয়, তো সে এই । যদিও কখন মনের ইচ্ছা হয়, তাতে জ্ঞানের সম্মতি হয় না । এমনিইতো মেয়ে মানুষের পক্ষে বিবাহ করা কেবল আপনার প্রাণটি বিপন্ন কোরে পরের বোঝা বওয়া। যেমন সেপাইরা ঐ কোবত গীয়ে আর বন্দুক ঘাড়ে করবার আমোদে এক জনের জন্যে যুদ্ধ কোরে হয় তো প্রাণে গেলেন, আর না হয় তো নানা ক্লেশ কোরে আহার নিদ্রা ত্যাগ কোরে যদি যুদ্ধে একটি দেশ জয় কোলে, তবে সেটি হল যার চাকর তারই । সেই রকম স্ত্রীলোকে দশ মাস পৰ্যন্ত নানা কষ্ট পেয়ে সন্তান প্রসব হন। হয় তো ঐ সময়ই একে বারে নিকেশ, আর যদি বেঁচে গেলেন, তবে যে সন্তানুটি হল, সেটি তিনি নিজে যার বিনি মূলে কেন দাসী, তারই হল। ন্যাও এখন ও কথা ছাড়। অণর ওতো একবার হয়ে গেছে, বস, ঢের হয়েছে । নীল। তুমিতে বোল্লে ছাড়, কিন্তু তোমার অবস্থাটি কেমন, যেমন— রম্য সরোবরে আসি হেরি শতদল —কলি অতি মনোহর রূপ তার ৷ ” মাতিয়ে প্রেম আমোদে হইল বিকল —অলি ফিরিয়ে না যেতে পারে আর ।