পাতা:অমরনাথ (কৃষ্ণচন্দ্র রায় চৌধুরী).pdf/৯৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


సి অমরনাথ । স্বাড়ে। আচ্ছা ! এই সিকের, তোমার কথা তো আমি ফেলতে পারব না। তবে পাটা লেখা হোক । দেও। ( মুন্সীর প্রতি দৃষ্টি করিয়া তাহকে আপনার মুখের দিকে এক দৃষ্টে চাহিয়া থাকিতে দেখিয়া ) স্থা, তা পাট। নবিসিন্দেকেও তে। কিছু বিবেচনা কোত্তে হবে ? র্যাড়ে। ই, তা বটে, কিন্তু এদিগে আমার যা আঁচ ছিল তার ঢেব বেশী হয়ে গেছে। তা যা হয়, আপনিই বোলে দ্যাও । দেও । এত বড় বিষয়টার নবিসিন্দে, ওঁকে দু শ টাকার কমতে আীব দিতে পার না ? * মুন্সী। কি ? দুশ টাকা ? একি ভিকে নাকি ? যাক আমি কিছু চাইনে, আমি অমনি লিখে দব। তবু ভাল যে একজনের উপগর কোলেম । তাতে ফল আছে । র্যাড়ে। মুন্সী মশায় ! রাগ করেন কেন ? তা আপনি কি বল ? অামাব তো এই দেখতে পাচ্ছে কত গোল । মুন্সী। তা দেখতে পাচ্ছি, কিন্তু একটুকু গোল পোড় লে নবিশিন্দে সাঙ্কিকেই আগে তলব হবে। তার কি বোল্লে ? আবার আমাদের আবৃতে কোন উপজিবিব নেই, এই রকমে যা দুটাক ছুসিকে পাওয়া । আমাদেব এ চাকুরিতে মিত্তে, ঐ মাইনের কটি টাকা একেবাবে আটকে বাদা, কোইদির খোরাকের মত উড়ি বঁটখরাতে মাপা । আমার চোদ পুরুষেও কখনো এমন চাকুরি করেনি। আমি এই দেখতে পাচ্ছেন অন্ন বসতোবে আজির। কিন্তু আমার ঠাকুর এক কালেক্টরির তৌজিনবিশিতে দেল দোলু দুগ্গোচ্ছব কোরে গেছেন। চাকরি বলি তাকে । সে একুকাল গেছে, তখন সক্তিযুগ ছিল। সে সব কথা উপন্নেশ হয়ে রোয়েচে । তা আর বোলুব কি ? এখন আমি চাট্টি শ টাকার কম এ কাজটিতে হাত দিতে পাবিনে ।