পাতা:অরূপরতন - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৫৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সাধের মুকুল কতই পড়ল ঝ’রে তা’র ধুলা হোলো, ধুলা দিল ভ'রে । প্রখর তাপে জরো-জরো ফল ফলাবার শাসন ধরে, হেলাফেলার পালা তোমার এই বেলা হোক ভঙ্গ ॥ ( সুদর্শনার প্রবেশ ) সুদৰ্শন । এ কী হোলো ? ঘুরে ফিরে সেই একই জায়গায় এসে পড়ছি । ঐ যে গোলমাল শোনা যাচ্চে, মনে হচ্চে আমার চারদিকেই যুদ্ধ চলছে। ঐ যে আকাশ ধূলোয় অন্ধকার । আমি কি এই ঘূর্ণি ধূলোর সঙ্গে সঙ্গেই অনস্তকাল ঘুরে বেড়াব ? এর থেকে বেরই কেমন ক’রে ? স্থরঙ্গম । তুমি যে কেবল চলে যেতেই চাচ্চ, ফিরতে চাচ্চ না, সেই জন্য কোথাও পৌছতে পাচ্চ না । সুদৰ্শন। কোথায় ফেরবার কথা তুই বলছিস্ ? সুরঙ্গম । আমাদের রাজার কাছে । আমি ব’লে রাখছি, যে পথ তার কাছে ন নিয়ে যাবে সে পথের অস্ত পাবে না কোথাও । ( সৈনিকের প্রবেশ ) স্থদর্শন। কে তুমি ? সৈনিক। আমি নগরের রাজপ্রাসাদের স্বারী । সুদৰ্শন। শীঘ্ৰ বলে। সেখানকার খবর কী ? & X