পাতা:অরূপরতন - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৬৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অন্ধপরতন বিক্রম । কিন্তু আমাকে এমন ক’রে আর কত দিন এড়াবে ? যখন কিছুতেই তাকে রাজা ব’লে মানতেই চাইনি তখন কোথা থেকে কালবৈশাখীর মতে এসে এক মুহূর্তে আমার ধ্বজ পতাকা ভেঙে উড়িয়ে ছারখার ক’রে দিলে আর আজ তার কাছে হার মানবার জন্তে পথে ঘুরে বেড়াচ্চি, তার আর দেখা-ই নেই। ঠাকুরদাদা । তা হোক, সে যত বডে। রাজা-ই হোক হার-মানার কাছে তাকে তার মানতেই হবে । কিন্তু রাজন, রাত্রে বেরিয়েছ যে । বিক্রম । ঐ লজ্জাটুকু এখনে ছাড়তে পারিনি । রাজা বিক্রম থালায় মুকুট সাজিয়ে তোমার রাজার মন্দির খুজে বেড়াচ্চে, এই যদি দিনের আলোয় লোকে দেখে তাহোলে যে তা’র হাসবে। ঠাকুরদাদা । লোকের ঐ দশা বটে । যা দেখে চোখ দিয়ে জল বেরিয়ে যায় তাই দেখেই বদররা হাসে । বিক্রম। কিন্তু ঠাকুরদাদা, তুমিও পথে যে ! ঠাকুরদাদা । আমিও সৰ্ব্বনাশের পথ চেয়ে আছি । গান অামার সকল নিয়ে বসে আছি সৰ্ব্বনাশের অাশায় । অামি তার লাগি পথ চেয়ে আছি পথে যে জন ভাসায় ॥ বিক্রম। কিন্তু ঠাকুরদাদা, যে ধরা দেবে না তার কাছে ধরা দিয়ে লাভ কী বলে । 4ఫి