পাতা:অরূপরতন - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৭০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অরুপরতন দীনবেশে তুমি রাজভবনে যাচ্চ, এ কি আমরা সহ করতে পারি ? একটু দাড়াও, আমি ছুটে গিয়ে তোমার জন্তে রাণীর বেশ নিয়ে আসি । BBBSS SBSBBS B BB BBB BBBB BBBBBB BBB ছাড়িয়েছেন—সবার সামনে আমাকে দাসীর বেশ পরিয়েছেন— বেঁচেছি বেঁচেছি—আমি আজ তার দাসী—যে-কেউ তার আছে, আমি আজ সকলের নিচে । ঠাকুরদাদা । শত্রুপক্ষ তোমার এ দশা দেখে পরিহাস করবে, সেইটে আমাদের অসহ্য হয় । স্বদর্শন। শত্রুপক্ষের পরিহাস অক্ষয় হোক—তারা আমার গায়ে ধূলো দিক । আজকের দিনের অভিসারে সেই ধূলোই আমার অঙ্গরাগ । ঠাকুরদাদা । এর উপরে আর কথা নেই । এখন আমাদের বসন্ত-উৎসবের শেষ খেলাটাই চলুক—ফুলের রেণু এখন থাক, দক্ষিণে হাওয়ায় এবার খুলে উডিয়ে দিক্‌ ! সকলে মিলে’ আজ ধূসর হয়ে প্রভুর কাছে যাব । গিয়ে দেখব তার গায়ে ও ধূলো মাখা । র্তাকে বুঝি কেউ ছাডে, মনে করছ ? যে পাম তার গায়ে মুঠে। মুঠে ধূলো দেয় ধে ! বিক্রম । ঠাকুর্দী, তোমাদের এই ধূলোর খেলায় আমাকেও ভুলো না ! আমার এই রাজবেশটাকে এমনি মাটি ক’রে নিয়ে যেতে হবে ষাতে এ’কে অপর চেনা না যায় । ঠাকুরদাদা ! সে আর দেরি হবে না ভাই । যেখানে নেবে এসেছ এখানে যত তোমার মিথ্যে মান সব ঘুচে গেছে—এখন দেখতে দেখতে রং ফিরে যাবে। আর এই আমাদের রাণীকে দেখো, ও নিজের উপর ভারি রাগ করেছিল—মনে করেছিল গয়না ফেলে وR\وR\