পাতা:অশনি সংকেত - বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অশনি-সংকেত পটল মদ প্রতিবাদের নাকি সরে বলল-সকালবেলা বঝি ? এখন তো দােপর হয়ে سسسسfتم --না, তা হােক, ব্রাহ্মণের ছেলে, বাঁশ-কড়ি নিয়ে থাকে না। রাতদিন ! --ছাগল যে বেগান গাছ খেযে যাচ্ছে ? --যাক গে। খোয়। উঠে আয় ওখান থেকে । এহ্মণের ছেলে হযে কী কােপালীর লের মত দা-কুড়ােল হাতে থাকিবি দিনরাত ? অনঙ্গ বললে-"কেন ছেলেটার পেছনে অমন করে লগাই গা ? ংেড়া বাঁধাই বাঁধক না ? টির দিন তো । গঙ্গাচরণ চক্কত্তি বললে--না, ওসব শিক্ষে ভাল না । ব্ৰহ্মণের ছেলে, ও রকম কি ভালো ? পটল নিতান্ত অনিচ্ছার সঙ্গে বেড়া বাঁধা রেখে উঠে। এ ল । অনঙ্গ স্বামীকে বললে-ওগো, একবার হরিহরের হাটে যাও না । -- কেন ? -একবার দেখে এসো নতুন গড়ে উঠলো। কিনা ৷ -সে তুমি ভেবো না, আমার গড় কিনতে হবে না । এখান থেকেই পাওয়া যাবে । বাই ভক্তি করে । বাইরে থেকে কে ডািকলো-সঙ্কত্তি মশায়, বাড়ী আছেন ? গঙ্গাচরণ বললে-তৃক রামলাল ? দাঁড়াও।-- আগ”তুক ম্যালেরিয়া রোগী, তার চেহারা দেখেই বোঝা যায়। গঙ্গাচরণ বাড়ীর বাইরে সতেই সে নিজের ডান হাতখানা বাড়িয়ে দিয়ে বললে- একবার হাতখানা দেখােন তো ? গঙ্গাচরণ ধীরভাবে বললে-অমন করে হাত দেখে না । বসো, ঠা^ডা হও । হেটে এসেচ, DD uB0Y BBB BBB SS BBBS LS BBDDBSBBBD DDB S SBDBB BDBBDDSBBB BBS BBBD DBO থায় করতে হয় । কাল কেমন ছিলে ? --রান্তিতে জবর-জাবর ভাব, শরীর যেন ভারী পাথর --কি খেয়েছিলে ? --দটো ভাত খেয়েছিলাম চক্কত্তি মশাই, আর কি খাবো বলেন, তা ভাত মাখে ভাল का की । --যা ভেবেছি তাই । ভাত খেলো-কি বলে ?? জবার সারবে কি করে ? -- তার খাবো না । -সে তো বক্সলামি-যা খেযে ফেলেচ, তার ঠালা এখন সামলাবে কে ? বোসো, দটাে ড় নিয়ে যাও-শিউলিপাতার রস আর মধ্য দিঘে খেও, দ্যাখো কেমন থাকো ওযধ নিয়ে রামলাল চলে যাচ্ছিল, গঙ্গাচরণ ডেকে বললে-ওঁহেঙ্কায়ামলাল, ভালো কথা, বার নতুন সর্ষে হয়েছে ক্ষেতে ? দুকঠা পাঠিয়ে দিও তো । আমি বাজারের তেল খাইনে প, সর্ষে দিয়ে কলাবাড়ী থেকে ভাঙিয়ে নিই । --তন্য আজ্ঞে । আমার ছেলে ওবেলা দিয়ে যাবে’খন । তেমন সর্ষে এবার হয় নি চাকত্তি গাই । বিশিষ্ট হওয়াতে সাষে গাছে পোকা ধরে গোল কাতিক মাসে । {ামলালকে বিদায় দিয়ে গঙ্গাচরণ সাগবে শত্রীর কাছে বলল-দেখলে তো ? যাকে যা নবো, না বলকে দিকি কেউ ? সে জো নেই কারো।