পাতা:অষ্টাঙ্গ হৃদয় - বাগ্‌ভট.pdf/১৮৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


oov vo সূত্রস্থান। ১৩৭ পত্রাদির সহিত খণ্ড খণ্ড করিয়া নিৰ্বাত স্থলে শিলাখৃষ্ঠে রাশীকৃত করিবে। চাহার সহিত ৪টি ঝিঙ্গা, কতকগুলি যাবশূক ও ঘুটিং দিয়া তিল কাষ্ঠের (তিল কঁাচকীর) অগ্নি দ্বারা দগ্ধ কৱিবে । অগ্নি নির্বাণ হইলে ঘুটিংভন্ম ১দ্রোণ, পৃথিগৃভাবে, রাখিলে, ঘণ্টাপারুল ও সোন্দাল প্রভৃতির ভস্ম ২ দ্ৰোণ একত্র অর্ধভার (২• তুলা ) পরিমিত গােমুত্র ও অৰ্দ্ধভার জলে ”গুলিয়া বস্ত্ৰদ্ধারা ছাকিয়া ঐ পরিক্রত ক্ষার জল পিচ্ছিল রক্তবর্ণ নিৰ্ম্মল ও তীক্ষ হইলে তাহা হইতে একসের লইয়া সুমন্ত্র লৌহ পাত্রৈম্মাখিবে । অবশিষ্ট ক্ষার জল লৌহ পাত্রে পাক করবে। পাক কালে হাত দ্বারা অনবরত নাড়িবে। এই সময়ে পুৰ্বোক্ত ঘুটিভেন্ম ১২৷• সের’ তাহাতে প্ৰক্ষেপ দিবে। আর কতকগুলি ঝিনুক খটকা ও শঙ্খনাভি পোড়াইয়া অগ্নিবর্ণ হইলে পুৰ্বোক্ত রক্ষিত ক্ষীরোদকে বারংবার নির্বাপিত করিবে এবং তাঁহাতেই পিষিয়া পচ্যমান’ক্ষার-জলে প্ৰতীব্যাপ ( দ্রবন্দ্রব্যে তত্তমরূপে পিষ্ট অন্তৰ্দ্ৰব্য প্ৰক্ষেপের নাম প্রতীবীপ) নিক্ষেপ করিবে। এণ্ঠদাবাড়ীতও কুফুর্ট, ময়ুর, গৃধ্ৰু, চিল ও পারাবতের পুরীষ এবং গবাদি চতুষ্পদ জন্তুর ও পক্ষীর পিত্ত, হরিতাল, মনঃশিলা ও লবণ শ্লাক্ষপিষ্ট করিয়া প্ৰতীব্যাপ দিবে। অনবরত দাবী দ্বারা অবঘটন করিতে করিতে যখন ঐ ক্ষার জল সবাষ্প বুদবুদের সুহিত লেহবৎ ঘন হইয়া উঠিবে, তখন উহা নামাইয়া স্ট্রেীহভাণ্ডে রাশিয়া সেইভাণ্ড যুবরাশি মধ্যে স্থাপন করিবে । ইহা মধ্যম ক্ষার। মুহু ক্ষার প্রস্তুত করিবার সময় ঘুটিম প্রভৃতি দ্রব্যগুলি অগ্নিতে পোড়াইয়া উক্ত ক্ষার জলে নিৰ্বাপিত করিবে। ক্ষীরোদকের সহিত পোষণ করিয়া প্ৰতিৰূপ নিক্ষেপ করিবে না। তীক্ষ ক্ষার প্রস্তুত করিতে হইলে মধ্যম ক্ষারের ষ্ঠায় সমস্ত ক্রিয়া করিয়া বিষলাঙ্গল, দন্তী, চিতামুল, আতুইচ, বাচ, সাঁচিক্ষার, স্বর্ণক্ষীৱী, হিং, নাটাকরঞ্জ পল্লব, তালপত্রী (তালমুলী) ও বিটুলবণ এই সকল দ্রব্যও, পেস্ত্রণ, পূর্বক প্রতীরাপ নিক্ষেপ করিবে। প্রস্তুত হইবার পর সপ্তরাত্র অতীত হইলে এই ক্ষুর ব্যবহার করিতে হইবে। ' ); ক্ষারপ্রয়োগের বিষয়। বাতাশ্লেষ্মাজ ও মেন্দোজ মহান অৰ্ব্বাদ প্রভৃতি রোগে তীক্ষ ক্ষার প্রয়োগ করিবে। উক্ত বাতজাদি মধ্য অৰ্ব্বদাদি রোগে মধ্য ক্ষার এবং পিত্তজ ও রক্তজ অর্শোরোগে মূহুক্ষার প্রয়োগ করিতে হয়। জলীয়ভাগ শুষ্ক হওয়ায়ু ক্ষার ঘনীভূত হইলে তাহার বলাধানার্থ পুনরায় তাঁহাতে ক্ষারবিধি ক্ৰত জল প্রদান করিবে ॥ ৮-২৩ ক্ষারগুণ। ক্ষার দশ প্রকার গুণযুক্ত। সুখ-নাতি ভীষ্ম, নাতি মৃদু, পঙ্ক, পিচ্ছিল, শীঘ্ৰঃ (শীত্রদেহব্যাপী), শুক্ল, শিখরী (উপরে পিড়কার মত উখিত ), সুখনিৰ্বাপ্য (কঁজি প্রভৃতি দ্বারা সহজে শীতল করা যায়), আবিষ্যদী (আবযুক্ত নহে ) ও অনতিরুজাকারক। ক্ষার-শস্ত্র ও অগ্নি অপেক্ষা অধিক কাৰ্য্যকারী অর্থাৎ ক্ষার দ্বারা ছেদন লেখনু পাটনাদি শস্ত্ৰকৰ্ম্ম এবং দাহনাদি অগ্নিকৰ্ম্ম সাধিত হইয়া থাকে ॥ ২৪ ক্ষার অভ্যন্তরে প্রযুক্ত হইলে তাহা ক্ষোভবশতঃ শরীরের সকল স্থানে অনুগমন পুৰ্ব্বক শরীরকে আচুৰিত ও মৰ্দ্ধিত করিয়া শস্ত্রসাধ্য দোষসমূহকে সমুলে উন্মুতি করে এবং দাহাদি স্বীয় কৰ্ম্ম করিয়া ও বেদনা না জন্মাইয়া স্বয়ংই বিনাযত্নে উপশমিত হয়৷ ২৫/২৬ * ক্ষীরসাধ্য অর্শ অৰ্ব্বদ প্রভৃতি শস্ত্ৰদ্ধারা ছিন্ন লিখিত (খৃষ্ট) অথবা আবিত (নিহৃত শোণিত ) করিয়া তাহাতে ক্ষার প্রয়োগ করবে। নতুবা ক্ষার প্রযোজ্য নহে। একটী শলাকায় Sy