পাতা:অসমীয়া সাহিত্য.pdf/৬৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বতমান যুগ ও ভবিষ্যতের ইঙ্গিত &షి. নপরের রপ ধরি বাজে পায় রণে জনা করি’ ‘জোনাকি পরবো সাতসরি জবলিছে ডিঙ্গিত শারীশারী জিলিকিনি ধরয় চকুত চক্ষতে ঝিলিক লাগাইয়া দিতেছে— আকাশে ধবেমণ্ডল সপ্তর্ষি উদয় হইতেছেন, দেবালয়ে আরতি হইতেছে, হরিধবনিতে মন পবিত্র, মদঙ্গ গোমুখ করতাল বাজিতেছে। আবার মরমে মরমে মরম নিগড় বান্ধনী বোলে মিছাই’, সগোল সঠোম সবলি বলিত বাহত জঙ্ঘা উরন কর’ রসস্নিগ্ধতায় বৈষ্ণব কবিকেও হার মানাইয়া দেয়— কি কাম দীঘল মেঘ বরণীয়া সাগরর টউ চুলি প্রেম পগলার হদয় তরণী বরি পায় গই তলি মণাল দরবাহ কি কাম সাধিব মত্ত প্রণয়ীর ডোল মিহি মউমাত বিয়াধর বাঁহী বাখি করি মঠভোল। ‘পদ্মকুমারী উপন্যাস হিসাবে সাথক না হইলেও তখনকার দিনের বাংলা উপন্যাসের অননুকরণ – “পাঠক সেই ছোরালীজনী কোন আপুনি চিনি পাইছেন ? পাঠক অলপ থির হওক লাহে লাহে সকল প্রশেনর উত্তর পাব .. ” কিন্তু বেজবরয়ো গৌহাটির এমন সন্দের বণনা দিয়াছেন যে অন্যত্র কোথাও তেমনটি পাওয়া যায় না। “প্রকৃতির কামাকানন, গগনভেদী পবতমালারে পরিবেটিত পবিত্র সলিল ব্রহয়পত্র নদর পবিত্র জলেরে বিধৌত, অসংখ্য তাঁথ'সথানের সমাকীর্ণ .. যার প্রাগজ্যোতিষ নাম ভুবনবিদিত, যার রজা ষোল হাজার কন্যার অধিপতি পৃথিবীর পত্র নরকাসর আর মহাভারতর যন্ধের বিখ্যাত হস্তী রথারোহী মহাবীর বন্ধ ভগদত্ত, যি গবাহাটির নিলাচল পবীতত মহামায়া ভগবতীর প্রধান পীঠস্থান কামাখ্যা বত মান, , , যি গবাহাটির অগ্নিকোণের সন্ধাচল পবতত ত্রিসন্ধা পরিপাত হাদয় বশিষ্ঠ মুনির আশ্ৰম...... যি গবাহাটির বেলতলা নামেরে স্থান ষটিসহস্র শিষ। পরিবেটিত মহামনি গালববর অমত নিষান্দিনী বেদধবনিরে প্রতিধৰনিত হৈছিল, পজেণীয় গোকণ ঋষির সামবেদ গীতত যে গবোহাটি হাজো নামক হয়গ্ৰীব মাধবর পণ্যভূমির কণা আপলত।” তাঁহার “দণ্ডিনাথের ফল", “সাধনা”, “চিন্তাহরণের সংসার চিত্র”, “বঢ়ি আইর সাধন", “পাচনি”, “কদমকলি”, ইত্যাদি প্রসিদ্ধ। “তেওঁর এই হাঁহি, এ রস খলখলাই ছলছলাই বৈ আহিছে নানারপে নানা ভঙ্গি মারে” । “অ মোর আপোনর দেশ’ জাতীয় সঙ্গীত তাঁহার অক্ষয় কীতি । রজনীকান্ত বরদলৈর মনোমতী’, ‘মিরিজিয়রী, নির্মল ভকত, রাধারকিরণীর রণ’ ও ‘তামেশবরীর মন্দির সমধিক প্রসিদ্ধ। মনোমতী বা ময়নামতীতে সখী প্রমীলা রসিকা, সে বলে প্রাণ নেওয়া বা দেওয়া ওসব যাক সখি মই পিশাচক বান্দরের দরে নচুরাম । বেণধের রাজখোয়ার সেউতি কিরণ’ একটি সামাজিক নাটক। পদ্মনাথ বড়ুয়ার ভানুমতী গল্প হিসাবে আজিকার পরিপ্রেক্ষিতে খুব সচল না হইলেও একটা সক্ষম বেদনার ধারা ইহাকে কিছুটা রসোত্তীণ করিয়াছে। তাহার লীলা' নামক কবিতাটি আর একট উচু স্তরের। প্রকৃতি ও পর্যুষের