পাতা:আকাশ-প্রদীপ-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/১৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
আকাশ-প্রদীপ


 বাকি সব জঙ্গল আগাছা।
 একটা লাউয়ের মাচা
 কবে যত্নে ছিল কারো, ভাঙা চিহ্ন রেখে গেছে পাছে।
 বিশীর্ণ গোলকচাঁপা গাছে
 পাতাশূন্য ডাল
 অভুগ্নের ক্লিষ্ট ইশারার মতো। বাঁধানো চাতাল;
 ফাটাফুটো মেঝে তার, তারি থেকে
 গরীব লতাটি যেত চোখে-না-পড়ার ফুলে ঢেকে।
 পাঁচিল ছ্যাৎলা-পড়া
 ছেলেমি খেয়ালে যেন রূপকথা গড়া
 কালের লেখনী-টানা নানামতো ছবির ইঙ্গিতে,
 সবুজে পাটলে আঁকা কালো সাদা রেখার ভঙ্গীতে।
 সদ্য ঘুম থেকে জাগা
 প্রতি প্রাতে নূতন করিয়া ভালোলাগা
 ফুরাত না কিছুতেই।
 কিসে যে ভরিত মন সে তো জানা নেই।
 কোকিল দোয়েল টিয়ে এ বাগানে ছিল না কিছুই,
 কেবল চড়ুই,
 আর ছিল কাক।
 তার ডাক
 সময় চলার বোধ
 মনে এনে দিত। দশটা বেলার রোদ