পাতা:আকাশ-প্রদীপ-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৭০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কহিল সে, “তোমার এ কবিন্ধের শেষে । - বানানো কথার ঘট । সদরেতে যত বড়ো, অন্দরেতে ততখানি ফাকি। জানি না কি দূর হতে নিরামিষ সাত্ত্বিক মৃগয়া নুই পুরুষের হাড়ে অমায়িক বিশুদ্ধ এ দয়া।” আমি শুধালেম, “আর তোমাদের ?” সে কহিল, “আমাদের চারিদিকে শক্ত আছে ঘের পরশ-বাচানো, সে তুমি নিশ্চিত জানো।” আমি শুধালেম “তার মানে ?” সে কহিল, “আমরা পুষি না মোহ প্রাণে, কেবল বিশুদ্ধ ভালোবাসি।” কহিলাম হাসি’ “আমি যাহা বলেছিমু সে কথাটা মস্ত বড়ো বটে কিন্তু তবু লাগে না সে তোমার এ স্পধর্ণর নিকটে। মোহ কি কিছুই নেই রমণীর প্রেমে।” সে কহিল একটুকু থেমে— “নেই বলিলেই হয় এ কথা নিশ্চিত । (??