পাতা:আত্মচরিত (শিবনাথ শাস্ত্রী).pdf/১১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্ৰথম পরিচ্ছেদ । ଈ আমার পিতার বয়ঃক্রম তখন ৬৭ বৎসর। এইরূপে, বৃদ্ধ প্ৰপিতামহ, BBDBBY DS GBS BDBDB D D BD DD DBDD DDD সংসার চলিতে লাগিল । আমার প্রপিতামহ রামজয় ন্যায়ালঙ্কার মহাশয় অধ্যাপক ছিলেন । তাহার আয়েই সংসার চলিত। তিনি ব্ৰাহ্মণ-পণ্ডিতের বৃত্তিরূপে অনেক উপার্জন করিতেন। তিনি অনেক সময় কলিকাতাতে বাস করিতেন । এখানে তিনি পটলডাঙ্গার প্রসিদ্ধ মলিক পরিবারের কুলপুরোহিত ছিলেন। দেশের কাজকৰ্ম্ম দেখার ভার পিসা মহাশয় ও বড়পিসীর डेअब्र किल । ক্ৰমে আমার পিতার দশম কি একাদশ বৎসর বয়ঃক্রম ও সেই সঙ্গে DDBDB BD DBDBDB DDBS BBDBBD BD BuDDBB DLD তখন কুলসম্বন্ধের প্রথা ছিল, এখন দিন দিন অন্তৰ্হিত হইতেছে। কুলসম্বন্ধের অর্থ এই যে, কুলীন বৈদিকের ঘরে কন্যা জন্মিলেই দুই একমাসের মধ্যে সমশ্রেণীর কোনও শিশু বালকের সহিত তাহার বিবাহ সম্বন্ধ স্থির করিয়া রাখা হইত। তৎপরে কন্যা আট নয়। বৎসরের হইলেই বিবাহক্রিয়া সম্পন্ন করা হইত। যদি বিবাহের পূর্বে বাগদত্ত বরের মৃত্যু হইত, তাহা হইলে কন্যা “অন্তপূৰ্ণা” নাম পাইত। তৎপরে আর তাহার কুলীন বরের সহিত বিবাহ হওয়ার সম্ভাবনা থাকিত না ; মৌলিক বরের সহিত বিবাহ হইত। আমার দুই পিলী, এইরূপে “অন্তপূৰ্বা” হইয়া মৌলিক বরের সহিত বিবাহিত হইয়াছিলেন। এই প্ৰথানুসারে আমার পিতার ছয়কি সাতমাস বয়সের সময়, কলিকাতার পাঁচ ক্রোশ দক্ষিণ-পূর্ববৰ্ত্তী চাঙ্গড়িপোতা গ্রামের হরচন্দ্ৰ ভায়রত্ন মহাশয়ের একমাসবয়স্ক প্রথম কন্যার সহিত কুলসম্বন্ধ করিয়া রাখা হইয়াছিল। তদনুসারে দশম কি একাদশ বৎসর বয়সে আমার পিতার বিবাহ হইল।