পাতা:আত্মচরিত (শিবনাথ শাস্ত্রী).pdf/৪১২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8 Se শিবনাথ শাস্ত্রীর আত্মচারিত করিতেছে ; যে কাজ করিতেছে সে অপরপার্থে দুরন্ত শ্ৰম করিতেছেঃ যার কাজ তার কাজ তাহাতে অপরের সংশ্ৰব নাই। এই চিন্তা ও কাৰ্য্যের ব্যবস্থা অতীব মনোরম। তাহার পর আর একটী গুণ যাহাকে ইংরাজীতে order বলে, অর্থাৎ যেখানকার যেটা সেইখানে সেইটী থাকা। দোয়াতটার জায়গায় দোয়াতটি, বইগুলির জায়গায় বইগুলি, আৰশুক হইলেই পাওয়া যায়। কোনও জিনিসের প্রয়োজন হইলে পাইতে দুই মিনিট বিলম্ব হয় না। এদেশে কতবার দেখিয়াছি গৃহস্বামী একস্থানে দোয়াত কলম রাখিয়া গিয়াছিলেন, বাড়ীর কোন ছেলে আসিয়া কলামটা কোথায় লইয়া গিয়াছে, গৃহস্বামী একটা বিল স্বাক্ষর করিয়া দিবেন, কলািমটার প্রয়োজন ; চীৎকার করিতেছেন, “ওরে রামা । কলম নে-গোল কে ? কলমটা দেখে নিয়ে আয় ।” কলম আসিতে বিলম্ব হইতেছে, তাহার মেজাজ খারাপ হইয়া যাইতেছে ; সে বিল স্বাক্ষর করাইতে আসিয়াছে, সে দ্বারে দণ্ডায়মান, তার সময় যাইতেছে ; বাবুর ক্ৰোধ বাড়িতেছে, মহা হুলস্থল। ইংরাজ ভদ্রলোকের গৃঙ্গে এরূপ ঘটনা বড় নিন্দার বিষয়। এরূপ ঘটিতে থাকিলে সে বাড়ীর গৃহিণীর ভদ্রসমাজে মুখ দেখান কঠিন। মধ্যবিত্ত ভদ্রগুহে এই গাৰ্হস্থ্য ব্যবস্থার পরে পারিবারিক প্ৰধান গুণ পরিচ্ছন্নতা (cleanliness)। প্রতিদিন গৃহের সকল বিভাগ সুমার্জিত হয়, কেবল তাহা নহে, প্ৰত্যেক চেয়ারের পায়াগুলি, প্ৰত্যেক খাটের পান্না ও বাড়গুলি, প্ৰত্যেক আলমারির ধারগুলি, কাপড়ের দ্বারা উত্তমরূপে মার্জিত হইয়া থাকে। অনেক গৃহস্থের গৃহসামগ্ৰীগুলি দেখিলে মনে হয়, তাহারা যেন অল্প দিন সে বাড়ীতে আসিয়া বসিয়াছেন। সৰ্ব্বোপরি মধ্যবিত্ত শ্রেণীর অধিকাংশ ভদ্ৰন্থহন্থের গৃহে ধৰ্ম্মের একটা ছায়া আছে। প্ৰতিদিন পারিবারিক উপাসনা হইয়া থাকে ; রবিবার