পাতা:আত্মচরিত (শিবনাথ শাস্ত্রী).pdf/৭৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দ্বিতীয় পরিচ্ছেদ No ও রবিবার সমস্ত দিন বাসা আর-এক মূৰ্ত্তি ধারণ কিরিত। কেত গাজা, কেহ মদ খাইয়া ঢলঢলি করিত। মাতুল খরচের জন্য বেকিছু পয়সা দিয়া যাইতেন তাহা এইরূপে ব্যয় করিয়া ফেলিত ; আমাদিগকে অনেক রবিবার ভাতেভাত খাইয়া কাটাইতে হইত। প্ৰশংসার বিষয়, আমাকে তাহারা অনেক সময় একটা কিছু ছল করিয়া অন্য কোনও বাসায় থাকিবার জন্য পাঠাইয়া দিত। তথাপি যাহা দেখিতাম ও শুনিতাম তাহ বালকের দেখা কোনও প্রকারেই কৰ্ত্তব্য নহে। ঈশ্বরকে আজ অগণ্য ধন্যবাদ দিতেছি যে, সেই সকল দৃষ্টান্তের মধ্যে তিনি আমাকে রক্ষা করিয়াছিলেন। আমি একদিনের বিবরণ বলিতেছি। বাসার অল্পশ্ৰিত আত্মীয়দিগের মধ্যে একজনকে সকলে “মামা।” “মাম” বলিয়া ডাকিত। ঐ মামা, সম্পর্কে আমার মায়ের-মামা BD S SDD DD DBBD DDDBDSS S DBBBL DD DDS BBDBS দোকানি-পসারি কেহই তাহাকে আসল নামে ডাকিত না, সকলেই মামা মামা বলিয়া ডাকিত । মামা ইংরেজী লেখাপড়া শেখে নাই, কম্পোজিটরি, বিলসরকারি প্রভৃতি করিয়া কিছু উপার্জন করিত। মামার সুরাপান ও অন্যান্য দোষ ছিল। একদিন রবিবার সন্ধ্যার পর একজন আত্মীয় আসিয়া সংবাদ দিলেন যে, মামা সুকিয়া ষ্ট্রীটের এক গণিকালয়ে মাতাল হইয়া বমি করিয়া পড়িয়া আছে, গণিকারী দ্বারকানাথ বিদ্যাভূষণের বাসার লোক বলিয়া তাহার নাম উল্লেখ করিয়া গালি দিতেছে। বারাঙ্গনার মুখে মাতুলের নাম, ইহা যেন আমার অসহ বোধ হইতে লাগিল। আমি মামাকে ধরিয়া আনিবার জন্য বাসার বয়োজ্যেষ্ঠ ব্যক্তিদিগকে অনেক অনুরোধ করিলাম, কিছু তাহারা নেশা করিয়া বুদ হইয়া ছিলেন, কেহই আমার কথার প্রতি