পাতা:আত্মচরিত (শিবনাথ শাস্ত্রী).pdf/৮৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দ্বিতীয় পরিচ্ছেদ ክዖዓ বলিয়া কতিপয় নবীন ব্ৰাহ্ম উকীল সংগ্ৰহ করিলেন ; তদ্ভিন্ন মামলা দেখিবার কৌতুহলবশতঃ কলিকাতা হইতে অনেক ব্ৰাহ্মযুবক বারিপুরে BD S BBBBDBD BD BBD BBDuD DEE DD DDDBS BBDB D DD DDBBBDDLSASq KS BDB BDDBD LDDBDB q DD DuDD BB DBBS GBB BLB DBBD DBDBB DDD D L LBBBDD DLS DBD DBDSDBDDBB LBB DBDB BBBLDDuD DBDL DBB DT DBDD DBBS BB BDBDD DDDB DBBBDuDLD DDDD আলিপুর সহরের জেলে আসিল। তখন আমি ভবানীপুরে থাকিडांग । स्त्राबांब्र यांनबागैी बाकीँक श्ब्रनाथ बद्द्श् बशनंब कांगौघांछे পাকিতেন ; শুকর মোল্লা মনীবের আদেশে অন্যায় কাজ করিয়া কয়েদ হইয়াছে, ইহার জন্য হরনাথ বাবু বড়ই দুঃখিত হইয়াছিলেন। তিনি কয়েদখানায় শুকর মোল্লাকে দেখিতে ও তাহার জন্য খাবার ণেইয়া যাইতে লাগিলেন। যতদূর স্মরণ হয়, আমি তখনও প্ৰকাশ ভাবে ব্ৰাহ্মসমাজে যোগ দিই নাই, কিন্তু সাধু উমেশচন্দ্র দত্ত, কালীনাথ দত্ত, হরনাথ বসু প্ৰভৃতি ব্ৰাহ্ম যুবকদিগকে প্ৰগাঢ় শ্রদ্ধার চক্ষে দেখিতে আরম্ভ করিয়াছি। হরনাথ আমাকে শুকর মোল্লার কয়েদের জন্য দুঃখিত দেখিয়া, প্ৰতি রবিবার আলিপুর জেলখানায় গিয়া শুকর মোল্লাকে মিঠাই প্ৰভৃতি খাওয়াইয়া আসিবার ভার আমার প্রতি দিলেন। আমি তাহাই করিতে লাগিলাম। এই জন্য শুকর মোল্লার কয়েদের কথা আমার মনে আছে। আমি যখন প্ৰতি রবিবার গিয়া আলিপুর জেলে শুকর মোল্লাকে খাওয়াইতেছি, তখন গ্রামে জমিদারবাবুদের শাসনে গ্রামের বালিকাবিদ্যালয়ে মেয়ে পাঠান বন্ধ হইয়াছে, কেবল আমার পিতামাতার দৃঢ়চিত্ততার গুণে আমার দুই ভগিনীকে লইয়৷ পণ্ডিত স্কুল চালাইতেছেন।