পাতা:আত্মচরিত (৪র্থ সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/১৭৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Sy শিবনাথ শাস্ত্রীব আত্মচাবিত [ ৬ষ্ঠ পবি: তউক, ১৮৬৯ সালেব প্ৰাবম্ভে গোসাইজ তাহাব ভুল স্বীকাব কবিয়া যখন আবাবা কেশববাবুব সহিত সম্মিলিত চাইতে চাহিলেন, তখন যেন আমাব হৃদয়েব একটা ভাব নামিষ গেল। এই পুনৰ্ম্মিলন উপলক্ষে বাণাঘাটেব্য সন্নিহিত কলাইঘাট নামক স্থানে ভাবতবৰ্ষীয ব্ৰহ্মমন্দিব প্ৰতিষ্ঠাব পূর্বে একটা উৎসব হয। ঐখানে গোসাইজী তখন সপবিবাবে বাস কবিতেন। আমি অপবাপব ব্ৰাহ্মব সতিত সে দিন সেখানে গমন কবি। তৎপূর্বে কেশব বাবুৰ সহিত সাক্ষাৎভাবে আমাব আলাপ পবিচাষ হত্য নাই । সেই উৎসবক্ষেত্রে আলোচনাস্থলে নবপূজাব আন্দোলনেব প্ৰসঙ্গ উপস্থিত হইলে আমি বলি, “মিবাবে ও ধম্মতত্ত্বে কে লেখেন তাহা আমি জানি না, কিন্তু উক্ত উভয পত্রিকাতে যে ভাবে গোসাইজী ও যদুবাবুব কথাব উত্তাব দেওয়া হইযাছে, তাহা হ্যান্য ও ভদতাব অনুগত ব্যবহাব নহে ।” তাঁহাতে কেশববাবু কানে-কানে অপব একজনকে আমাব বিষয় জিজ্ঞাসা কবেন । তিনি বলিয়া দিলেন, “সোমপ্ৰকাশ-সম্পাদক দ্বাবকানাথ বিদ্যাভূষণেব ভাগিনা।” এটা মনে আছে, কেশববাবু সেই দিন হইতে আমাকে বিশেষভাবে দেখিলেন ও চিনিলেন। আমি সে যাত্রা কেশব বাবুব সুপ্ৰসন্ন সবল ও স্বাভাবিক ভাব দেখিয়া মুগ্ধ হইয়াছিলাম। একদিন সন্ধ্যাব পাব। তিনি সশিষ্যে কীৰ্ত্তন কবিতে করিতে নীেকাযোগে চুণী নদীতে বেড়াইতে গেলেন। আমবা। যাই নাই ; প্ৰাতে উঠিয়া দেখি, কেশববাবু ব্ৰাহ্মদেব পায়েব তলাতে একপাশে পড়িয়া ঘুমাইতেছেন। আতাব কবিতে বসিযা দেখিতাম, তাহাব বড়মানুষী কিছুই নাই, সামান্য ডালভাত মনেব আনন্দে আহাৰ করিতেছেন । এ সকল আমাব বড় ভাল লাগিত । দীক্ষাগ্ৰহণ ॥-ক্রমে ১৮৬৯ সালের ৭ই ভাদ্র ( ২২ শে আগষ্ট) ভারতবর্ষীয় ব্ৰহ্মমন্দিব প্ৰতিষ্ঠাব দিন আসিল। তখন কয়েকজন যুবককে দীক্ষিত কবিবাব প্ৰস্তাব হইল। আমার কোন কোন বন্ধু আমাকে জিজ্ঞাসা