পাতা:আত্মচরিত (৪র্থ সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/৫৩৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


3r শিবনাথ শাস্ত্রীর আত্মচারিত [ পরিা অস্থির হইলেন ; “ওরে কুসী, বেরাল ছানা কঁদে কোন রে ? বুঝি শীত ক’কৃছে।” কুসুম। তুমি ঘুমাও, ঘুমোও। ও’র মাকে পাচ্ছে না বলে ডাক্‌চে। এখনি ও’র মা আসবে, তখন চুপ করবে। এ কথা বাবার মনঃপূত হইল না। তিনি উঠিলেন, এবং বিড়ালশাৰকটীকে আপনার লেপের মধ্যে আনিয়া কোলে করিয়া শুইলেন। তবুও সে থামে না ! বাবা বলিলেন, “আহা, শিশু কিনা, বোধ হয় উদরের পীড়া হ’য়েছে।” कूश्व (ब्रांब्रिा) । शैः ! ७’ब्र डेन्द्र औफुा इ’काप्छ ! यां७, डूषेि উঠে গিয়ে কবিরাজ ডেকে আন! এই উদরের পীড়া’র বিষয়ে একটু কথা আছে। আমার বাবা সামান্য কথোপকথনেও অনেক সময় শুদ্ধ ভাষা ব্যবহার করিতেন । ইহা লইয়া আমাদের বাড়ীতে সময়ে সময়ে বড় হাসাহাসি হইত। BDBBS BD DB BBD SS BDD DD DBDB DDB আহারান্তে শয়ন করিয়াছেন। সবে নিদ্ৰা আসিতেছে, এমন সময় পাড়ার কতকগুলি বালকবালিকা আমার ভাগিনেয়ীর সঙ্গে খেলিবার জন্য আসিয়া উপস্থিত। তাহারা গোল করিতেছে। বাবা বিরক্ত হইয়া বলিলেন, “আঃ, নিদ্ৰাকর্ষণ হচ্চে, এখন কে গোল করে ?” মা আসিয়া ছেলেগুলিকে তাড়াইয়া দিলেন ; বলিলেন, “যাঃ, যা, অন্য জায়গায় খেলগে যা। এখন ‘কর্ষণ হচ্চে, দেখচিল না৷ ” এই লইয়া আমার ভগিনীদের মধ্যে মহা হাসি উঠিয়া গেল। অধিক কি, ইতর প্রাণীদের উপরে বাবার এতই ভালবাসা যে, • একদল শকুনির প্রতি নিষ্ঠুরতা অপরাধে তিনি আমার স্ব-গ্ৰামবাসী ব্ৰাহ্ম ৰন্ধু কালীনাথ দত্তের প্রতি একৰ।ার হাড়ে চটিয়া গিয়াছিলেন। সে, ব্যাপারটা এই। কতকগুলি শকুনি কালীনাথ বাবুর নারিকেলবাগানের