পাতা:আত্মচরিত (৪র্থ সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/৭১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১৮৫৬-৬১ ] সহাধ্যাৰীদিগেব বাটীতে মা বোনেৰ অভাব পূৰণ ৬৫ চন্দ্ৰ প্ৰভৃতিব কবিতাব সমালোচনা কবিতেন । এই-সকল কাবণে আমার শৈশব হইতে কবিতা লিখিবাব বাতিক জাগিয়া থাকিবে। আমাব দশ বৎসর বয়সেব লিখিত খাত পাবে দেখিয়াছি, তাহাতে কয়েকটি কবিতা লিখিত আছে। সেগুলি এরূপ উৎকৃষ্ট যে অতটুকু বালকেব। লিখিত বলিয়া বোধ হয না । অনুমান কবি, সেগুলি অন্য কোনও স্থান হইতে নকল কবিয়া লইয়াছিলাম। তাহাতেও এই প্ৰমাণ হয যে, নয় দশ বৎসৰ বাসুেও ভাল কবিতা দেখিলেই নকল কবিয়া লইতাম । সহাধ্যায়ীদিগের বাটীতে গিয়া মা বোনেব অভাব পুরাণ - এই সমযেব স্মবাণীষ বিষয় 'আব একটী আছে । আমাব দুইটী সহাধ্যাযী বালকোব মাতাবা এই সমযে আমাব মাসীব কাজ কবিয়াছিলেন । তঁহাদিগকে আমি মাসী বলিয়া ডাকিতাম ; সর্বদা তাহাদের বাড়ীতে যাইতাম , তাঙ্গাদেব কন্যাদেব সঙ্গে ভাইবোনেব মত খেলিতাম। ইহাতে আমাব জননীব ও ভগিনীব অভাব দুব হইত। ভাল জিনিস কিছু গৃহে কইলেই তাহাবা আমাকে ডাকিয়া খাওয়াইতেন। পাছে আমি কুসঙ্গে পড়ি এই ভয়ে তাহাবা কলেজেব ছুটীব দিনে আমাকে নিজেদেব বাড়ীতে বাখিতেন । এই দুখ এগাব বৎসব বয়সেব আব-একটী কৌতুকজনক ঘটনা স্মৰণ হৰ্ষী আমাদেব কলেজেব সন্নিকটেৰ গলিতে একটী বালিকা ছিল। সে আমাব সমবয়স্ক। দেখিতে যে খুব সুন্দাবী ছিল, তাহা নহে, কিন্তু তাহাব মুখখানি আমাব বেশ লাগিতা। সে তাহদেব বাড়ীব্য উঠানে খেলা কবিত। আমি আব-একটী বালকেব। সঙ্গে বোজ তাহাকে দেখিতে যাইতাম। সে তাব মাঝ ভয়ে পথেৰ বালকোব সহিত বড় বেশী কথা বলিত না ; কিন্তু সেJজানিত যে আমরা তাহাকে দেখিতে ও তাহাব সঙ্গে কথা কহিতে ভালবাসি, তাই সে আমাদের কণ্ঠস্বয় শুনিলেই বাহিবে আসিত ও এটা ওটা যাহা দিতাম গোপনে লাইভ ।