পাতা:আত্মজীবনী ও স্মৃতি-তর্পন - জলধর সেন.pdf/১৮০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


›ዓx9 अांप्यूर्यौवनौ ७ डि-डॉं१ অনুকুল মন্তব্যই প্ৰকাশ করতেন। সে প্রশংসা-বাদ। আর দাখিল করে কাব্য নেই। দুইবার দুইটি বিশেষ ব্যাপারে আমাকে তঁর সংশ্রবে। আসতে হয়েছিল। সেই দুইটি ঘটনার কথা বলেই আমি আমার স্মৃতি-তৰ্পণ শেষ করব। 'বঙ্গবাসী’র সংশ্ৰব ত্যাগের তিন চার বৎসর পরের কথা বলছি। আমি তখন ‘বসুমতী’র সম্পাদক । আমাদের যে দিন কাগজ ছাপা হ’তে, “বঙ্গবাসী’ও সেইদিনই ছাপা হ’তো। একবার আমাদের কাগজের কাষ বিকেলবেলাই শেষ হয়েছে, মেশিনে ফর্ম আঁটা হয়েছে। সন্ধ্যা থেকেই ছাপা আরম্ভ হবে। মেঘাড়ম্বর দেখে আপিসের অনেকেই বাড়ী চলে গেলেন, থাকলাম আমি, উপেনবাবু, আর প্রিন্টার পটোলবাবু (পূৰ্ণচন্দ্র মুখোপাধ্যায়)। জমাদাব মেশিনে ফর্ম তুলে দিল, ছাপাও আরম্ভ হ’লো। তখন একটু একটু বৃষ্টি নেমেছে। এই বৃষ্টি থামলেই আমরা বাসায় চলে যাবো স্থির করলাম। বৃষ্টি BD KS DBDB DBB SDDD S DD DDD uuiJSiDg BBB BBDE Y ছাপা হয়ে গিয়েছে, সেই সময় ভীষণ একটা শব্দ করে মেশিন বন্ধ হয়ে গেল । উলফৎ জমাদার উপরে আপিস ঘরে এসে বলল-মেশিন ভেঙ্গে গিয়েছে। কিছুতেই আর চলবার উপায় হোল না। আমরা তখন তাড়াতাড়ি নীচে গিয়ে যা দেখলাম, তাতে বুঝতে পারলাম মেশিনের যে অংশটা ভেঙ্গে গিয়েছে সেটার আর মেরামত চলবে না। নূতন করে গড়ে এনে লাগিয়ে দিতে হবে। সে তো তিন চার দিনের ব্যাপার। এখন কাগজ ছাপা হয় কি করে ? পরদিন সকালে ‘বসুমতী’ বাজারে বের করতেই হবে। এখন উপায় ? উপেনবাবু, পটােলবাবু মাথায় হাত দিয়ে বসলেন। আমার অবস্থাও ততোধিক। উপেনবাবু নিরাশভাবে বললেন, কি আর করা যাবে-এ হস্তায় কাগজ বেরুবার কোন সম্ভাবনাই দেখছি নে । আমি সহজে দমাবার পাত্র ছিলাম না। বললাম-দেখি আর কোন প্রেসে ছাপাবার ব্যবস্থা করতে পারি কি না। উপেনবাবুজিজ্ঞাসা করলেনBBL DBD S DBBD DDBuS BBDDYSBDBBDB DDD D S Bg যদি 'বঙ্গবাসী’র কর্তা যোগেনবাবু এই বিপদে সাহায্য করেন। BBD DBDBuYii LB S SDDDDB BD BDBDD DBD BDBDB