পাতা:আত্মজীবনী ও স্মৃতি-তর্পন - জলধর সেন.pdf/৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


S8 स्त्रांशूौर्नौ 8 डि-लिश्र१ BD DDOKE S DBD DBD S DBBBD BBDD S S BDD DDDDB अश्रद्धांक्ष ब्रश्फ कुठ्ठ८ङ श्रांद्रव्लांश न । আমি যেমন তেমন একটা চাকরি নিয়ে শশধরের কলেজে পড়বার ব্যয় চালাব। আমার এই দৃঢ় সঙ্কল্পে কেহই বাধা দিতে পারেন নি। বড়দাদা। তখন গোয়ালন্দের ফৌজদারি আদালতের পেস্কার। তারপর তিনি সেখানে হেডক্লার্কও হয়েছিলেন। তিনি সেই সময়ে ছয় মাসের ছুটি নিয়ে পাবনায় কি একটা কাজে গিয়েছিলেন । সেইখান থেকেই আমাকে সংবাদ দিলেন, যে, গোয়ালন্দ স্কুলের থার্ড মাষ্টারী খালি আছে। তিনি স্কুলের প্রেসিডেণ্ট ম্যাজিষ্ট্রেট সাহেবকে পত্র লিখেছিলেন । প্রেসিডেণ্ট আমাকে ২৫ টাকা বেতনে থার্ড মাষ্ট্ররীতে নিতে স্বীকার করেছেন । সে গোয়ালন্দে কৈশোর কাল কাটিয়েছি, যে গোয়ালন্দ স্কুল থেকে সর্বপ্রথম মাইনর পাস করে ৫ পাঁচ টাকা বৃত্তি পেয়েছিলাম।--সেই স্কুল এন্ট্রান্স স্কুলে পরিণত হওয়ার বছর ২৩ পরে আমি সেখানেই মাষ্টার হয়ে গেলাম । গোয়ালন্দে আমাদের একটা বাড়ী ছিল। সেটা দাদা নিজেই তৈরী করিয়েছিলেন। দাদা পাবনায় চলে’ যাওয়ায় সে বাড়ী বন্ধ ছিল । তিনিই ব্যবস্থা করে’ পাঠালেন যে, রেজেক্ট অফিসে হেড ক্লার্ক ব্ৰজেন্দ্ৰনাথ বিশ্বাস মহাশয়ের বাসায় আমি থাকব । দাদার ফিরে আসতে তখনও দুই মাস বিলম্ব ছিল। ব্ৰজেন্দ্ৰবাবুর ছোট ভাই লোকনাথ তখন ওখানকার স্কুলের ফোর্থ भाछेद्धि । আমি গোয়ালন্দে গিয়ে ব্ৰজেনবাবুর বাসায় উঠলাম। তখন স্কুলের হেড মাষ্টার ছিলেন-অধুনা পরলোতগত মদনমোহন সরকার মহাশয়। তিনি মাইনর স্কুলেরও হেড মাষ্টার ছিলেন। আমি তঁর কাছ থেকেই মাইনর পাশ করি। স্কুল এন্ট্রান্সে পরিণত হওয়ার পর তিনিই হেডমাষ্টার হন। তখন আর কি। ম্যাট সিনি-গ্যারিবল্ডি আকাশ-কুসুমের মত আকাশেই মিলিয়ে গেল। ‘হেন করব।-তেন করব-স্বদেশের সেবা করব-বাংলা সাহিত্যের সেবায় জীবন অতিবাহিত করব। কাঙাল হরিনাথের উপযুক্ত শিষ্য হবার জন্য প্ৰাণপাত করব। চিরকুমার জীবন অতিবাহিত করব।” ইত্যাদি কত সকল্প মনে মনে ছিল। এল-এ ফেল করে সব আশা-আকাঙ্ক্ষা চুৰ্ণ-বিচূর্ণ হয়ে গেল। আমি BBDDDD BBD DBDD DBDuDuu iiD DDD S BBBDB DBBBDB DDYiDu BBBDDB BDBDDB S DBD DDBDDDD BDDBBES DDBD DB SBD DDD