পাতা:আদিশূর ও বল্লালসেন.pdf/৩৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আদিশূর ও বল্লাল সেন ఫిసె ধানে উল্লেখ নাই। শ্ৰীযুত রাজেন্দ্র বাবু বীরসেনবংশীয়দিগের ক্ষত্ৰিয়ত্ব প্রতিপাদনের সাহায্যার্থে, এই চরণের ষে । অনুবাদ করিয়াছেন, ঐ অনুবাদ আমরা বিশুদ্ধ বলিয়া স্বীকার করিতে পারি না । তাহার অনুবাদানুসারে “ সামন্তসেন অভু্যচ্চ ক্ষত্ৰিয়বংশের মস্তকমালা।” স্থতরাং “ ব্রহ্মক্ষত্রিয়” এক উচ্চ ( অথবা মহৎ ) ক্ষত্রিয় জাতি : আমরা যতদূর অনুসন্ধান করিতে পারিয়াছি, তাহাতে, মম্বাদিপ্রণীত শাস্ত্রে “ ব্রহ্মক্ষত্রিয় ” নামে কোন জাতি, অথবা ক্ষত্ৰিয় জাতির কোন শ্রেণীবিশেষের উল্লেখ প্রাপ্ত হইলাম না। জাতিমালা গ্রন্থে ভারতবর্ষস্থ সমুদয় জাতির নাম উল্লেখ আছে কিন্তু “ ব্রহ্ম ক্ষত্রিয় ” জাতির উল্লেখ নাই। আমরা সার রাজা রাধাকান্ত দেব বাহাদুর প্রণীত শব্দকল্পদ্রুম, অমরকোষ, গোলড্‌ষ্টকর প্রণীত সংস্কৃত অভিধান এবং অন্যান্য কতিপয় অভিধান অনুসন্ধান করিয়া দেখিলাম কোথাও “ ব্ৰহ্ম ক্ষত্রিয় ” শব্দ প্রাপ্ত হইলাম না ; কিন্তু ক্ষত্রিয়, অম্বষ্ঠ প্রভৃতি সকল জাতিবাচক শব্দই লিখিত আছে। “ব্ৰহ্ম ক্ষত্রিয় ” নামে কোন জাতি থাকিলে, “ ব্রহ্ম ক্ষত্রিয় ” শব্দ অবশ্যই অভিধান সমূহে সন্নিবেশিত হইত। ক্ষত্রিয়ের স্বীয় স্বীয় পূর্ব পুরুষদিগের মর্য্যাদানুসারে খ্যাতি লাভ করিয়া থাকেন, যথা সূৰ্য্যবংশীয়, চন্দ্রবংশীয়, রাঠোরবংশীয়, অগ্নিকুলবংশীয় ক্ষত্রিয়েরা সমধিক প্রসিদ্ধ । ইহঁীদিগের দ্বিতীয় প্রকার শ্রেণীবিভাগ দ্বাদশ দেশে বাসহেতু নির্ণীত হইয়াছে, যথা—গোঁড়, শকসেন, শ্ৰীবাস্ত ইত্যাদি । এই শ্রেণী-বিভাগের মধ্যেও “ ব্রহ্ম ক্ষত্রিয় ” জাতি অথবা তদন্তর্গত কোন শাখা দৃষ্টি