পাতা:আনন্দমঠ - বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/৫৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


響. &थभ ५९-शशण भब्रिग्रहण क । cरून ? মহে। তোমাকে ছারাইলে পর আমার যাহা যাহা ঘটিয়াছিল শুন । এই বলিয়া বাহা যাহা ঘটিয়াছিল, মহেন্দ্র তাহা সবিস্তারে বলিলেন। কল্যাণী বলিলেন, “আমারও অনেক কষ্ট, অনেক বিপদ গিয়াছে। তুমি শুনিয়া । কি করিবে ? অতিশয় বিপদেও আমার কেমন করে ঘুম আসিয়াছিল, বলিতে পারি নী—কিন্তু আমি কাল শেষ রাত্রে ঘুমাইয়াছিলাম। ঘুমাইয়া স্বপ্ন দেখিয়াছিলাম। দেখিলাম—কি পুণ্যবলে বলিতে পারি না—আমি এক অপূৰ্ব্ব স্থানে গিয়াছি। সেখানে মাটি নাই। কেবল আলো, অতি শীতল মেঘভাঙ্গ আলোর মত বড় মধুর আলে। সেখানে মনুষ নাই, কেবল আলোময় মূৰ্ত্তি, সেখানে শব্দ নাই, কেবল অতিদূরে যেন কি মধুর গীতবাষ্ঠ হইতেছে, এমনি একটা শব্দ। সৰ্ব্বদা যেন নূতন ফুটিয়াছে, এমনি লক্ষ লক্ষ মল্লিকা, মালতী, গন্ধরাজের গন্ধ। সেখানে যেন সকলের উপরে সকলের দর্শনীয় স্থানে কে . বসিয়া আছেন, যেন নীল পৰ্ব্বত অগ্নিপ্রভ হইয়া ভিতরে মন্দ মন্দ জলিতেছে। অগ্নিময় বৃহৎ কিরীট তাহার মাথায় । তার যেন চারি হাত। তার দুই দিকে কি আমি চিনিতে পারিলাম ন—বোধ হয় স্ত্রীমূৰ্ত্তি, কিন্তু এত রূপ, এত জ্যোতিঃ, এত সৌরভ যে, আমি সে দিকে চাহিলেই বিহ্বল হইতে লাগিলাম ; চাহিতে পারিলাম না, দেখিতে পারিলাম না যে কে। " যেন সেই চতুভূজের সম্মুখে দাড়াইয়া আর এক স্ত্রীমূৰ্ত্তি। সেও জ্যোতিৰ্ম্ময়ী ; কিন্তু চারি দিকে মেঘ, আভা ভাল বাহির হইতেছে না, অস্পষ্ট বুঝা যাইতেছে যে, অতি শীর্ণ, কিন্তু অতি রূপবতী মৰ্ম্মপীড়িত কোন স্ত্রীমূৰ্ত্তি কাদিতেছে। আমাকে যেন স্বগন্ধ মন্দ পবন বহিয়া বহিয়া, ঢেউ দিতে দিতে, সেই চতুভূজের সিংহাসনতলে আনিয়া ফেলিল। যেন সেই মেঘমণ্ডিত শীর্ণ স্ত্রী আমাকে দেখাইয়া বলিল, “এই সে—ইহারই জন্য মহেন্দ্র আমার কোলে আসে না। তখন যেন এক অতি পরিষ্কার স্বমধুর বঁাশীর শব্দের মত শব্দ হইল। সেই চতুভূজ যেন আমাকে বলিলেন, ‘তুমি স্বামীকে ছাড়িয়া আমার কাছে এস। এই তোমাদের মা, তোমার স্বামী এর সেবা করিবে । তুমি স্বামীর কাছে থাকিলে এর সেবা হইবে না ; তুমি চলিয়া আইস —আমি যেন কাদিয়া বলিলাম, স্বামী ছাড়িয়া আসিব কি প্রকারে। তখন আবার বঁাশীর শব্দে শব্দ হইল, “আমি স্বামী, আমি মাতা, আমি পিতা, আমি পুত্র, আমি কন্য, আমার কাছে এস। আমি কি বলিলাম মনে নাই। আমার ঘুম ভাঙ্গিয় গেল।” এই বলিয়া কল্যাণী নীরব হইয়া রছিলেন । (t