পাতা:আনন্দমঠ - বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


W8 আনন্দমঠ মহেন্দ্র বিস্মিত, স্তম্ভিত, ভীত হইয়া নীরবে রহিলেন। মাথার উপর দোয়েল ঝঙ্কার করিতে লাগিল। পাপিয়া স্বরে আকাশ প্লাবিত করিতে লাগিল। কোকিল দিল্পগুল প্রতিধ্বনিত করিতে লাগিল । “ভূঙ্গরাজ” কলঙ্কণ্ঠে কানন কম্পিত করিতে লাগিল। পদতলে তটিনী মৃদ্ধ কল্লোল করিতেছিল। বায়ু বন্য পুষ্পের মৃদ্ধ গন্ধ আনিয়া দিতেছিল। কোথাও মধ্যে মধ্যে নদীজলে রৌদ্র ঝিকিমিকি করিতেছিল। কোথাও তালপত্র মৃতু পবনে মৰ্ম্মর শব্দ করিতেছিল। দূরে নীল পৰ্ব্বতশ্রেণী দেখা যাইতেছিল। ছুই জনে অনেকক্ষণ মুগ্ধ হইয়া নীরবে রছিলেন। অনেকক্ষণ পরে কল্যাণী পুনরপি জিজ্ঞাসা করিলেন, “কি ভাবিতেছ?” মহেন্দ্র। কি করিব, তাহাই ভাবি-স্বপ্ন কেবল বিভীষিকামাত্র, আপনার মনে জন্মিয় আপনি লয় পায়, জীবনের জলবিম্ব—চল গৃহে যাই। - ক। যেখানে দেৰত তোমাকে যাইতে বলেন, তুমি সেইখানে যাও—এই বলিয়া কল্যাণী কস্তাকে স্বামীর কোলে দিলেন। মহেন্দ্র কন্যা কোলে লইয়া জিজ্ঞাসা করিলেন, “আর তুমি—তুমি কোথায় যাইবে ?” কল্যাণী দুই হাতে ই চোক ঢাকিয়া মাথা টিপিয়া ধরিয়া বলিলেন, “আমাকেও দেবতা যেখানে যাইতে বলিয়াছেন, আমিও সেইখানে যাইব ।” মহেন্দ্র চমকিয়া উঠিলেন, বলিলেন, “সে কোথ, কি প্রকারে যাইবে ?” কল্যাণী বিষের কোট দেখাইলেন । মহেশ্র বিস্মিত হইয়। বলিলেন, “সে কি ? বিষ খাইবে ?” ক। “খাইব মনে করিয়াছিলাম, কিন্তু—” কল্যাণী নীরব হইয়া ভাবিতে লাগিলেন। মহেন্দ্র তাহার মুখ চাহিয়া রছিলেন। প্রতি পলকে বৎসর বোধ হইতে লাগিল। কল্যাণী আর কথা শেষ করিলেন না দেখিয়া মহেন্দ্র জিজ্ঞাসা করিলেন, “কিন্তু বলিয়া কি বলিতেছিলে ?” ক। খাইব মনে করিয়াছিলাম–কিন্তু তোমাকে রাখিয়া—সুকুমারীকে রাখিয়া— বৈকুণ্ঠেও আমার যাইতে ইচ্ছা করে না। আমি মরিব না। এই কথা বলিয়া কল্যাণী বিষের কোটা মাটিতে রাখিলেন। তখন ছুই জনে ভূত ও ভবিষ্ণুৎ সম্বন্ধে কথোপকথন করিতে লাগিলেন । কথায় কথায় উভয়েই অস্ত্যমনস্ক হইলেন। এই অবকাশে মেয়েটি খেলা করিতে করিতে বিষের কোঁটা তুলিয়া লইল । কেহই তাহ দেখিলেন না।