পাতা:আনন্দ-তুফান - প্রিয়নাথ চক্রবর্ত্তি.pdf/৪৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

বিসর্জ্জন।

৩৩


না পেলু গো জানাইতে তোরে
জীবের যাতনা ঘোর—জননি।
বড় সাধ ছিল যাহা মনে, এতকাল।
চলিলে শঙ্করি! ভাসাইয়া শোক-সিন্ধু-নীরে,
অভাগা সন্তানে আজ—কোন্‌ প্রাণ?
জানিতাম দয়াময়ী তুমি—চিরদিন;
কিন্তু গো মা, ভাগ্যদোষে, জানিলাম এবে,
প্রকৃত নাম তব—‘পাষাণী’,—
পাষাণনন্দিনী! যাও, যথায় বাসনা তব;
কে রোধিবে গতি তব, গতি-বিধায়িনি!
কিন্তু, বড় সাধ ছিল মা মানসে,
থাকিবে দু’দিন, দেখাইব প্রাণেশ্বরি,
প্রাণের দুর্দ্দশা করেছে যা’ মায়া—মায়ালিনী;
পুরিল না সে বাসনা আর।
তবু কহি করযোড়ে;–
“এসো মা, এসো মা শিবে!
হৃদয়-আসনে পুনঃ যেন পাই মা তোমারে।
প্রণিপাত করি ও চরণে;
আশীর্ব্বাদ এই কর তারা,
“আমি যেন রহি মা আমার” চিরদিন।