পাতা:আনবারশোহেলি.djvu/৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আনবারশোহেলি । ৩৯ যে এই লিখনের বিবরণ উত্তমৰূপে প্রকাশ কৰুণ । , •অনুমান করি আমি শুন মহাশয় । • বুঝি এই লিপি হতে বাঞ্ছ। সিদ্ধি হয় । পরে পণ্ডিত ঐ লিপি লইয়া প্রত্যেক অক্ষরের প্রতি দৃষ্টি করত বিবিধ বিবেচন। পূর্বক কহিলেন যে এ লিখন অনেকং লভোর সম্বলিত অাছে, আর কহিলেন যে ইহ। মূলধন নিদর্শনের পত্র হইতে পারে ঐ পত্রের বিবরণ এই যে এই ধনাগার আমি যে হোশঙ্গ বাদশাহ আম কতৃক রায় দfবশিলীম নামক মহারাজের নিমিত্ত এই স্থানে সমপিত হুইয়tcছ কারণ দৈববাণীর দ্বারা অামি জ্ঞাত হইয়াছিলাম যে এই সকল ধনে রায় দাবশলিমের অধিকার হইবেক, আর এই উপদেশ পত্র রত্নাদি ধনের মধ্যে সমপণ করিয়াছি যৎকালীন এই ধনাগারকে তুলিবেন ও এই উপদেশ সকল দৃষ্টি করিবেন তৎকালীন স্বীয়ান্তঃকরণে চিন্ত। করিবেন যে স্বর্ণ মুক্তাদিতে বিহ্বল হওয়া বুদ্ধিমান ব্যক্তির ಕfಕ್ತ নৃছে, কারণ ইহা ঋণ স্বৰূপ চুইয়াছে অর্থাৎ প্রতিদিন হস্ত পরিবত্ত হইবেক এবং কাহার নিকট চিরস্থায়ী নহেন । ধরণিতে ধন আশে কেন লোক রয়। অনর্থের মূল অর্থ চিরস্থায়ী নয় । কদt চ কাহারে ইথে বিশ্বাস না হয় । কোথায় বা থাকে ধন নিধন সময় !