পাতা:আমার বাল্যকথা ও আমার বোম্বাই প্রবাস.pdf/২৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


> ネ আমার বাল্যকথ BB BBB BBB BB BBSBBS BB BB KBB BBBB BSBBB S BBBB BB BBB BBS BBB BB BBB BBB BBB BBS BSBS BB BBB সঙ্গীতপ্রিয় ছিলেন এবং ইটালীয় ও ফরাসী সঙ্গীত খুব পছন্দ কবতেন। তিনি গান করতেন আর আমি সেই গানের সঙ্গে পিয়ানো বাজতোম—এই ভাবে আমাদের দিনগুলি বেশ আনন্দে কেটে যেত। তিনি বেশ সুকণ্ঠ ছিলেন। একদিন আমি তাকে বল্লাম একটি খাটি ভাবত-সঙ্গীত গাইতে, তাতে তিনি যে গানটি প্রথমে গাইলেন, সেটা ঠিক ভাৰতীয় নয়, পারসিক গজল, এবং আমিও তাতে বিশেষ কোন মাধুর্য্য পেলাম না। খাটি ভারত-সঙ্গীত গাইবার জন্ত পুনঃ পুনঃ অনুবোধ করায় তিনি মৃদু হেসে বল্লেন, ‘তুমি তা উপভোগ করতে পারবে না।’ তারপব আমার অনুরোধ রক্ষার জন্ত একটি গান নিজে বাজিয়ে গাইলেন । সত্য বলিতে কি, আমি বাস্তবিকই কিছু উপভোগ করতে পাবলাম না। অামাব মনে হ’ল যে, গানে না BB BBS BS BBBB BBBS B BSBB BBBBS BBBBBBB gg BBS BBB তিনি বলেন, ‘তোমরা সকলেই এক রকমেব। যদি কোন জিনিস তোমাদের কাছে নতুন ঠেকে বা প্রথমেই তোমাদের মনোরঞ্জন করতে না পাবে, তোমরা অমনি তার প্রতি বিমুখ। প্রথম যখন আমি ইটালীয় গীতবাদ্য শুনি, তখন আমিও তাতে কোন রস পাইনি, কিন্তু তবু আমি ক্ষান্ত হয়নি ; আমি ক্রমাগত চর্চা করতে লাগলাম যতক্ষণে না আমি তার মধ্যে প্রবেশ করতে পাবলাম। সকল বিষয়েই gBBBS BBB BB BBBB BB BBB BBS BBBB BB BBD BBS আমাদের দর্শন দর্শনই নয়। ইয়োরোপ যাঙ্গ প্রকাশ করে আমরা চেষ্টা করি তাহ বুঝতে ও হৃদয়ঙ্গম করতে, কিন্তু তাই বলে ভারতবর্য যাহ। প্রকাশ করে তাকে অবহেলা করি না। আমরা যেমন তোমাদের সঙ্গীতবিদ্যা, কাব্য দর্শন আলোচনা করি, তোমরাও যদি তাই করতে তাহলে তোমরাও আমাদের দেশের বিদ্যাগুলির মৰ্ম্ম বুঝতে পারতে এবং আমাদেব যে অজ্ঞ ও ভণ্ড মনে কর, বাস্তবিক আমরা তা নষ্ট, বরং অজ্ঞাত বিষয়ে তোমরা যা জান, আমরা হয়তো তারো অধিক জানতে পেরেছি দেখতে। বাস্তবিক তিনি নিতান্ত ভুল বলেন নি। এই কথাগুলি বলতে বলতে তিনি ভারি উত্তেজিত হ’য়ে উঠলেন ; তাকে ঠাণ্ড করবাব জন্ত আমি অন্ত বিষয়ের অবতারণা করে বল্লাম যে, “আমি শুনেছি যে ভারতীয় সঙ্গীতের উৎপত্তি অঙ্কশাস্ব হইতে। আমি একবার সঙ্গীত শাস্ত্রের একটা ংস্কৃত খসড়া দেখেছিলাম কিন্তু কিছুই বুঝতে পারলাম না। প্রোফেসার উইলসন একজন সঙ্গীতজ্ঞ লোক এবং তিনি বহুবৎসর ভারতবর্ষে বাস করেছিলেন, সেইজন্ত তাকে