পাতা:আমার বাল্যকথা ও আমার বোম্বাই প্রবাস.pdf/২৪৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আমার বোম্বাই প্রবাস ל מי"d , ঘাটে এইরূপ শোকাভিনয় দেখিতে পাইবে । দেখিলে মনে হয় যেন কাহার কি সৰ্ব্বনাশ উপস্থিত হইয়াছে। কিন্তু এই শোককারী নারীদিগের তালে তালে বক্ষাঘাত, অশ্রুহীন বিলাপধ্বনি এবং কৃত্রিম ভাবভঙ্গী দেখিয়া শীঘ্রই সে ভ্রম দূর হয়। ভাড়ের যাত্রা শোকের কাহিনী হইতে একটু অমোদের কথা বলিয়৷ এই ভাগ শেষ করি । BB BBB BBB BDBBBB DD BBB BBB BB BB DDBBBBSBBBBB অনেক ইংরাঞ্জ ও দেশীয় লোক উপস্থিত ছিলেন । সেই পার্টিতে আমোদের যে সব সরঞ্জাম ছিল তার মধ্যে ভাবইয় নামে ভীড়ের যাত্রার দল আনানো হইয়াছিল। ভাবইয়ার উপস্থিত ঘটনা বর্ণনায় ও লোকজনের চরিত্র নকলে পরম পটু। তাহারা যে সময়কার চিত্র প্রদর্শন করিতেছিল তখন বোম্বায়ে “সেয়ার মেনিয়া” রোগের বিশেষ প্রাদুর্ভাব। আবাল বৃদ্ধ বনিতা সকলেই সেয়ার কিনিবার জন্য পাগল । নিঃস্ব কাঙ্গাল—যাহার ঘরে অন্ন জোটে না সেও একরাত্রির মধ্যে সম্পদবান হইয়া উঠিবে—লোকের এইরূপ উচ্চাকাঙ্ক্ষার সীমা নাই। ইংরাজ মারাঠী গুজরাটী এই সংক্রমিক রোগ সকলকেই ধরিয়াছে। সেই বেণকে ইংরাজ ও দেশীয়দের বিলক্ষণ মেলামেশা হইত। নেটিব তখন ইংরাজের অবজ্ঞার পাত্র ছিল না। তখন তাছাদের গলাগলি ভাব দেথে কে ? সেয়ার বাজারের রাজা ছিলেন প্রেমচাঁদ রায়র্চাদ, তবে তজ্জনীর ইঙ্গিতে সেয়ায় বাজারের উত্থান পত্তন হইত। ইংরাজের তখন তাঙ্গার দরবাবে গিয়া খোসামোদ করিতে আপনাদিগকে অপমানিত বোধ করিতেন না । মেমসাহেব পৰ্য্যস্ত কথন কখন সেয়ার ভিক্ষা করিতে র্তাহার দ্বারে উপস্থিত হইতেন । এই বিষয়টি সেই গুজরাটি ভীড়ের সুন্দর নকল করিয়াছিল । সাহেব তাহার মেমকে লইয়৷ সেয়ার অবদারের জন্ত বাহির হইয়াছেন দেখিয়া দর্শকমণ্ডলীর মধ্যে হাসির ফেয়ারা উঠিল । ইহার মধ্যে ওদিকে কি গোলযোগ উপস্থিত ! চটপট চপেটাঘাতের শব্দ ! এক জন ইংরাজ ম্যাজিষ্ট্রেট র্তাহার স্বজাতির ওরূপ উপহাসজনক নকল সহিতে না পরিয়া বেচারা ভাড়দের উপর উত্তম মধ্যম প্রহার আরম্ভ করিলেন, সেই গোলমাল মজলিস ভাঙ্গিয় গেল। ভীড়ের খেলা বিয়োগান্ত নাটকে পরিণত ইল। আমরা হাসি কি কাদি–কিছুই ঠিক করিতে পারিলাম না । _ গুজরাট আমার সর্বিসের প্রথমকালের বিহারক্ষেত্র । সে দেশের লোকের সঙ্গে DBB BBB BBBBB S BB BBBBBB BB BBB BBBBB BBBB BBB থাকিবে । १8 *