পাতা:আমার বাল্যকথা ও আমার বোম্বাই প্রবাস.pdf/২৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আমার বাল্যকথা ל\b BB BBBB BB BB BBBBB BBB BBBB BBBSBBS BB BB BBS BBBS করেছিলাম ; কিন্তু তিনি আমাকে বিশেষ উৎসাহ দিলেন না। তিনি বল্লেন যে, তিনি গান শিখবাব জন্য একবার একজন কলোয়াতেব কাছে গিয়েছিলেন, তাতে কালোয়াত বলেন যে, ছয় ময় পর্যন্ত সপ্তাহে দুই তিন দিন কবে তার কাছে এসে গান শিখলে পব তিনি বলতে পারবেন যে এই ছাত্র সঙ্গীত-বিদ্যা শিথবীর উপযুক্ত কি না এবং তারপর একাদিক্ৰমে পাচ বৎসর কাল রীতিমত শিক্ষা কবলে তবে পারদর্শী হ’তে পাববনে । এই কথা শুনে প্রোফেসব উইলসন সেইখনেই ক্ষান্ত দিলেন। সঙ্গীতরত্নাকর প্রভৃতি বিখ্যাত সঙ্গীত পুস্তক গুলি লাইব্রেৰীতে দেখে আমার বড়ই লোভ হ’ত শিখবাব জন্ত, কিন্তু প্রোফেসর উইলসনেব মুখে ঐ কথা শুনে পৰ্য্যন্ত আমাকেও ইচ্ছা DBB BBB DSKS BBBBB BBBBBBBBB BBB BBB BBBB BBBSBBBB প্রধান পৃষ্ঠপোষক আছেন—তিনি হচ্ছেন রাজ সেবীন্দ্রমোহন ঠাকুব । তোমাল পিতামহ দ্বারকনাথ খুব বুদ্ধিমান লোক ছিলেন । কেন জানি না, তিনি ব্রাহ্মণকুলকে বিশেষ শ্রদ্ধাৰ চক্ষে দেখতেন না এবং একদিন যখন আমি তাকে জিজ্ঞস করলাম যে, দেশে ফিবে গিয়ে তাকে প্রায়শ্চিত্ত করতে হবে কি না, তিনি চেসে বল্লেন, “আমি তো চিবকাল বহুতর ব্রাহ্মণকে পোষণ করে আসছি, সেই BBB BD BBg gBBBB S BB BB B BBBB BBBB BBBBBD BB BB BBBB K BDSBB BBBBB BBBBB BBBBBBB SBBBS BBS BBS BBB ব্রাহ্মণ’,— তাদেরও সমান নীচ চক্ষে দেখতেন। যদিও তিনি ইংরাজদের সকল বিষয়েই প্রশংসা কবিতেন, কিন্তু পাদ্রিকুলের কোন নিন্দাবাদ বা লজ্জাজনক ব্যবহারের কথা জানতে পারলে তিনি ভারি অামোদ বোধ করতেন। তিনি অনেকগুলি রাজনৈতিক ও পারমার্থিক সংবাদপত্র পড়তেন। তাব একখানি খাতা ছিল যার মধ্যে তিনি অতি যত্ন সহকারে পাদদেব নিন্দাজনক নানা কথা লিখে রাখতেন। সে এক অদ্ভূত ংগ্ৰহ-অনেক সময় আমি ভাবি যে সে থাতখানির কি দশ হ’ল। তোমার ঋষি প্রতিম পিতা কখনই সে থাত লয়ে রহস্ত করেন নি নিশ্চয়ই। কিন্তু যখনই খৃষ্টধৰ্ম্ম ও হিন্দুধন্মের সত্যতা, ও শ্রেষ্ঠতা নিয়ে কারে সঙ্গে তর্ক বাধতে, দ্বারকানাথ তখনই সেষ্ট খাতখিনি প্রমাণস্বরূপ বের করতেন। অবশ্য আমি বলতাম যে, কোন দেশেরই ধৰ্ম্মযাজকদের ব্যক্তিগত চরিত্রের উপর নির্ভর করে ধৰ্ম্মের বিচার করা চলে না। দ্বারকানাথ প্যারিসে খুব জাকজমক সহকারে বাস করতেন। তখনকার রাজা লুই ফিলিপ কর্তৃক তিনি সমাদরে গৃহীত হয়েছিলেন । শুধু তা নয়—দ্বারকানাথ একদিন খুব সমারোহে সান্ধ্য-সম্মিলনের আয়োজন করেন, তাতে রাজা লুই ফিলিপ