পাতা:আমার বাল্যকথা ও আমার বোম্বাই প্রবাস.pdf/২৮৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আমার বোম্বাই প্রবাস ২১৭ সেনাপতি ভেসেল বাঙ্গলায় মুরসিদাবাদ পৰ্য্যন্ত লুটপাট করিয়া ফিরিয়া আসেন। আমাদের শিশু-ঘুমপাড়ানী গান আর “মারাঠা ডিচ” নামক নগর-সংরক্ষণী বৰ্গদের উৎপাতের স্মৃতিচিহ্ন অদ্যাপি বর্তমান । ১৭৫১ সালে নবাব আলিবর্দির নিকট হইতে তাহারা বাঙ্গলার চৌথ ও উড়িষ্যার অধিকার লাভ করেন। জলদস্থ্য আঙ্গে, নানার শাসনকালে ইংরাজের জলদস্থ্য আঙ্গে দমনে পেশওয়ার সহযোগিতা করেন। পূৰ্ব্বে সমুদ্রের উপর জিঞ্জিরা নবাবের আধিপত্য ছিল। মোগল সাম্রাজ্য পতনের পর মারাঠী সর্দার আঙ্গে তাহার স্থান অধিকার করেন। ১৬৯০ হইতে ১৮৪০ পর্যন্ত কানোজী হইতে রাখোজী পৰ্য্যন্ত, অঙ্গে বংশের আধিপত্য কাল । রঘোজীর মরণানন্তর তাহার বংশ লোপ পাইয়া ডালহৌসী রাজনীতি অনুসারে আঙ্গে রাজ্য ইংরাজ হস্তগত হয়। আঙ্গের হস্তে ইংরাজদেরও অনেক কষ্ট ভোগ করিতে হইয়াছিল। ১৭২৪ ও ১৭৫৪ মধ্যে দুই ইংরাজ রণতরী অঙ্গে কর্তৃক ধৃত হয়। কলিকাতাবাসীগণ যেমন বর্গীদের উৎপাত ভয়ে সহরের চারিদিকে গর্ত খনন করিয়া সুরক্ষিত হন, বোখের বণিকগণও আঙ্গের আক্রমণ শঙ্কার সেইরূপ উপায় অবলম্বন করিতে বাধ্য হইয়াছিলেন। ১৭৫৫ সালে কানোজীর পুত্র তুলাজীকে দমন করিবার জন্ত ইংরাজের পেশওয়ার সহিত যোগ দেন ; পর বৎসরে সুবর্ণদুর্গ ও বিজয়দুর্গ তাহার প্রধান দুই দুর্গ বিজিত হয় । সুবর্ণদুর্গ হারাইয়া তুলাজী সাগরপরিরক্ষিত বিজয়ন্ধুর্গের আশ্রয় গ্রহণ করিলেন । আডমিরল ওয়াটসন ও কর্ণল ক্লাইব, মিলিয়া, ওয়াটসন জলে ক্লাইব স্থলে, আক্রমুণকরতঃ দুর্গ দখল করেন। অতঃপর ইংরাজ গবর্ণর বিজয়তুর্গ লাভ লালসে পেশওয়াকে বিস্তর অনুরোধ করেন কিন্তু তাহা যদিও পাইলেন না, তৎপরিবর্তে বোম্বায়ের দক্ষিণস্থ বাস্কেট ও অপর কতকগুলি গ্রাম উপার্জনে ক্ষতিপূরণ করিয়া লইলেন । অপিচ পেশওয়ার নিকট হইতে এইরূপ বচন পাইলেন যে, ওলন্দাজের মহারাষ্ট্র রাজ্যে প্রবেশ ও বাসের অনুমতি পাইবে না ; তাহদের বাণিজ্য পর্য্যন্ত বন্ধ করিয়া দিবেন। পোৰ্ত্ত গীসের পতন ও মারাঠীদের সহিত উত্তরূপ সন্ধি স্থাপনবশতঃ অস্তান্ত প্রতিদ্বন্দ্বী ইউরোপীয়জাতির মধ্যে ইংরাজদের প্রভুত্ব বলবত্ত্বর হইয়া উঠিল। নানা সাহেবের শেষদশ শোচনীয় । তিনি পাণিপতের যুদ্ধে স্বজাতির অধঃপাত স্বচক্ষে দর্শন করিয়া হতাশ হইয়া ফিরিয়া আসিলেন-ভারতবর্ষে স্বাধীন হিন্দুরাজ্য २7