পাতা:আমার বাল্যকথা ও আমার বোম্বাই প্রবাস.pdf/৩১৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


રં8 છ * আমার বোম্বাই প্রবাস কাটাতে হ’ত, অনেকের পতি জীবিত থাকতেও কি দারুণ বৈধব্য যন্ত্রণা ভোগ করতে হ’ত, জীবনে একটিবারও তাদের ভাগ্যে স্বামীর মুখদর্শন ঘটত না- যেখানে সেখানে এইরূপ কুলীনকুল-কলঙ্ককাহিনী শোনা যেত। আমার বেশ মনে পড়ে বিদ্যাসাগর মহাশয় এই বিষয় নিয়ে কত আন্দোলন করতেন, পারিবারিক শান্তিহর এই অনর্থকর প্রথা উচ্ছেদের কত উপায় চিন্তা করতেন, বলতেন যে বহুবিবাহ নিবারণী রাজবিধি প্রচলন ভিন্ন এ রোগের ঔষধ নেই । কিন্তু এই অল্পকালের মধ্যে আমরা কি দেখছি ? দেখছি যে বিনা আইনে বহুদারব্যবসায়ী কুলীনদের অন্ন মারা গিয়েছে— বহুবিবাহ প্রথা আপনার ভারে আপনি চাপ প’ড়ে মৃতপ্রায় হয়ে পড়েছে। যেমন বাঙ্গল দেশে বোম্বায়ে তেমনি জাতিবিপ্লবের লক্ষণ অল্প-বিস্তর দেখা যাচ্ছে । উপরে আর্য্যসঙ্ঘের কথা বলেছি, জাত ভাঙ্গবার চেষ্টাই তাদের এক ব্রত । কিছুদিন হ’ল তারা যে সভা আহবান করেছিলেন তাতে প্রায় ৭৮০ লোক উপস্থিত হয়েছিল এবং প্রায় ১৫০ ব্যক্তি জগতের বাধা না মেনে একত্রে পরস্পর প্রীতিভোজনে মোগ দিয়েছিলেন । আর একটা দৃষ্টান্ত বলি—সমুদ্রযাত্রা । বিলাতযাত্র আগেকার কালে কি ভয়ানক ব্যাপারই ছিল, আর এখন অপেক্ষাকৃত কত সহজ হয়ে এসেছে। এ বিষয়ে সেকালের গোড় হিন্দুদের মনোভাব সুবিখ্যাত গুজরাট রিফরমার করসনদাস মূলজীর জীবনবৃত্ত থেকে আমরা বিলক্ষণ বুঝতে পারছি। এই কয়েক বৎসরের মধ্যে এ বিষয়ে কি আশ্চর্য্য পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায় । আজকের দিনে বিলাতযাত্রীর সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে, সে স্রোত কিছুতেই প্রতিরোধ করা যায় না। সমাজের শাসনও অনেক পরিমাণে মন্দীভূত হয়েছে। শিক্ষা, বাণিজ্য বা রাষ্ট্রীয় অনুরোধে এই যে কত কত হিন্দুসস্তান বিলাত বেড়িয়ে দেশে ফিরে আসছেন তাদের জাতে ওঠবার বিহিত ব্যবস্থা করা হয় এ একপ্রকার সর্ববাদিসন্মত । রীত রক্ষার জন্তে কোন রকম সহজ প্রায়শ্চিত্ত নিলেই তার জাতে উঠতে পারেন, এখন কেবল প্রায়শ্চিত্ত বিধানটা একেবারে উঠে গেলেই নিস্কৃতি পাওয়া যায়। কেননা ভেবে দেখলে এই ক্ষেত্রে প্রায়শ্চিত্ত নেওয়াটাই হীনতা স্বীকার। পাপের জন্তে প্রায়শ্চিত্ত— তার একটা অর্থ আছে ; কিন্তু বিনা দোষে লোক দেখান প্রায়শ্চিত্ত, য়ুরোপ প্রবাসের পাপকলঙ্ক ধুয়ে ফেলবার জন্তে সমাজের খাতিরে প্রায়শ্চিত্ত গ্রহণ করা—এতে কি আপনার কাছে আপনাকে খাট করা হয় না ? এই কি সত্যনিষ্ঠ সাহসী পুরুষের কাৰ্য্য ? এই বিদেশ ভ্রমণে ব্যক্তিগত যা কিছু উপকার হচ্ছে, এর ফলভোগী যে সমাজ, কে না স্বীকার করবে এবং এর সুদূর পরিণাম কি দাড়াবে কে বলতে পারে ?